Health

ভারতের ৩টি টিকা এখন ঠিক কী অবস্থায়, স্পষ্ট করল স্বাস্থ্যমন্ত্রক

ভারতে করোনা প্রতিষেধক যে ৩টি টিকা আসার সম্ভাবনা প্রবল সেগুলি কী অবস্থায় তা স্পষ্ট করে দিল স্বাস্থ্যমন্ত্রক।

নয়াদিল্লি : যত দিন যাচ্ছে ততই করোনা ছড়াচ্ছে বেশি। হতে পারে সুস্থতার হার বাড়ছে। কিন্তু তার মানে এই নয় যে করোনা কমছে। ফলে মানুষ ক্রমশ ধৈর্য হারাচ্ছেন। এবার তাঁরা এ থেকে মুক্তি চান। অথচ বিশেষজ্ঞেরা জানাচ্ছেন করোনা থেকে মুক্তি পেতে হলে টিকা আবশ্যিক। কিন্তু কই টিকা!

প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী লালকেল্লায় ১৫ অগাস্টের ভাষণে জানিয়েছেন দেশে ৩টি টিকা ট্রায়াল স্তরে আছে। তবে টিকা এলেই তা যাতে খুব কম সময়ের মধ্যে দেশের মানুষকে দেওয়া যায় তার রূপরেখা কেন্দ্র তৈরি করে ফেলেছে। প্রধানমন্ত্রীর বক্তব্য অবশ্যই আশ্বাসের। কিন্তু টিকা এলে তারপর তো তা দেওয়ার প্রশ্ন উঠছে!

ভারতে যে ৩টি টিকা ট্রায়াল স্তরে দ্রুত এগোচ্ছে তারমধ্যে একটি অবশ্যই ভারতের ভারত বায়োটেক ও আইসিএমআর-এর যৌথ উদ্যোগে তৈরি কোভ্যাক্সিন। যা ভারতের নিজস্ব প্রযুক্তিতে তৈরি হয়েছে। দ্বিতীয়টি হল অক্সফোর্ডের তৈরি কোভিশিল্ড। যার ট্রায়াল ভারতের সেরাম ইন্সটিটিউট ও ইংল্যান্ডের অ্যাস্ট্রাজেনেকা যৌথভাবে ভারতে করছে। ভারতে এই ট্রায়ালের দায়িত্বে সেরাম রয়েছে। তারা এই টিকা তৈরিরও বরাত পাচ্ছে। তৃতীয় টিকাটি হল জাইডাস ক্যাডিলা-র তৈরি টিকা। যারা কিন্তু ভারতে তাদের ট্রায়াল চালাচ্ছে।

কোভ্যাক্সিন তার প্রথম পর্বের ট্রায়াল শেষ করেছে। খুব ভাল ফল এসেছে। যা অবশ্যই ভাল খবর। এবার তারা দ্বিতীয় স্তরের ট্রায়াল শুরু করতে চলেছে। অক্সফোর্ডের তৈরি কোভিশিল্ড, যার ট্রায়াল ভারতের সেরাম ইন্সটিটিউট ও ইংল্যান্ডের অ্যাস্ট্রাজেনেকা যৌথভাবে করছে, তার দ্বিতীয় ও তৃতীয় ধাপের ট্রায়াল শুরু হয়েছে। বিভিন্ন শহরের ১ হাজার ৭০০ জনের ওপর এই ট্রায়াল হচ্ছে। জাইডাস ক্যাডিলা তাদের টিকার প্রথম পর্যায় সাফল্যের সঙ্গে অতিক্রম করেছে। তারাও দ্বিতীয় ধাপ শুরু করতে চলেছে।

যা পরিস্থিতি তাতে বিশেষজ্ঞদের মতে, করোনা প্রতিষেধক এই ৩টি টিকার একটি অন্তত এই বছরের শেষেই প্রস্তুত হয়ে যাবে। তার বেশিও হতে পারে। তবে জাইডাস ক্যাডিলা জানিয়ে দিয়েছে তাদের টিকা চূড়ান্ত রূপ নিতে নিতে সামনের বছরের প্রথম দিক। তার আগে কিছু হচ্ছেনা। বাকি ২টি যদি ডিসেম্বরে চূড়ান্ত হয়ে যায় তাহলে দেশবাসী স্বস্তি পান। যদিও এর মধ্যে আবার ভারতকে রাশিয়া তাদের তৈরি টিকার তথ্য দেওয়া শুরু করেছে। — সংবাদ সংস্থার সাহায্য নিয়ে লেখা

Show More

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Back to top button