Lifestyle

বিয়ের প্রথম রাতে স্বামীস্ত্রী ঘরে ঢুকলেই সকলে থালাবাসন বাজান

বিয়ের পর স্বামীস্ত্রীর একান্ত মুহুর্তে বাগরা দিতে নানা দুষ্টুমিতে ভরিয়ে তোলেন বাড়ির বাকিরা। এটা নিছকই মজা। এমনই এক আজব মজায় যোগ দেন পাড়ার সকলেও।

বিয়েতে বাসর জাগার কথা তো এখানকার সকলের জানা। এমনকি ফুলসজ্জার রাতেও আড়িপাতা সহ নানা দুষ্টুমি বিয়ের মজার একটা অঙ্গ। স্বামীস্ত্রীকে তাদের প্রথম রাত একান্তে কাটানোয় সাময়িক বাগরা দিয়ে মজা করাই হয় উদ্দেশ্যে।

তবে এমনটা মনে করার কোনও কারণ নেই যে এমন সব উদ্ভট মজা ভারতেই হয়। আর বাকি বিশ্বে সকলে কেবল প্রথা মেনে বিয়ে করে নিজের মত বাড়ি ফেরেন। প্রায় ফুলসজ্জার রাতে উত্যক্ত করার মত রীতি রয়েছে বিদেশেও।

ফ্রান্সে রয়েছে এক বহু পুরনো প্রথা। যেখানে বিয়ের প্রথম রাতে স্বামীস্ত্রী ঘরে ঢুকলেই ঘরের বাইরে বাড়ির সকলে, বন্ধু, আত্মীয়, প্রতিবেশি সকলে মিলে হাজির হন। এমনকি ঘর যদি রাস্তার দিকে হয় তাহলে রাস্তাতেও অনেকে হাজির হন।

কারও হাতে থাকে থালা, কারও অন্য বাসন, কারও হাতে থাকে বাজালে জোরে আওয়াজ হয় এমন ধাতব পাত্র। এগুলি বাজাতে শুরু করেন সকলে। বিয়ের প্রথম রাতে স্বামীস্ত্রী প্রথম একে অপরকে আলাদা করে পাওয়ার পরই এমন শব্দ কল্পদ্রুম শুরু হয়ে যায়।

যতক্ষণ না স্বামীস্ত্রী ফের মুখ দেখাচ্ছেন ততক্ষণ চলতে থাকে এই কাণ্ড। এখানেই শেষ নয়। সকলকে এই বাসনপত্র বাজানো থেকে বিরত করতে নিয়ম হল স্বামীস্ত্রীকে সকলের জন্য পানীয় ও জলখাবারের ব্যবস্থা করতে হয়।

সেসব খাওয়া শেষ হলে তবেই স্বামীস্ত্রী ফের শান্তিতে ঘরে ঢুকে দোর দিতে পারেন। ফ্রান্সে বহু বছর ধরে চলে আসা এই প্রথাটি সেখানে শেরিভারি নামে পরিচিত।

Show More

Leave a Reply

Your email address will not be published.

Back to top button