World

মাস্ক পরতে রাজি নন যাত্রী, মহাসমুদ্রের ওপর থেকে ফিরে এল বিমান

একজন যাত্রীর জন্য ভুগতে হল গোটা বিমানের যাত্রীদের। এমনকি বিমান পর্যন্ত বাতিল হয়ে গেল। কিন্তু ওই যাত্রীকে গ্রেফতারও করা হল না।

একজন যাত্রীর নাছোড় মানসিকতার জের ভুগতে হল গোটা বিমানের যাত্রীদের। গন্তব্যে পৌঁছতে গিয়েও ফিরতে হল ছেড়ে যাওয়া বিমানবন্দরে। কিন্তু শেষ পর্যন্ত ওই মহিলা যাত্রীকে মাস্ক পরানো যায়নি।

বিমানটি আমেরিকান এয়ারলাইন্সের। মায়ামি থেকে সেটি উড়ে যাচ্ছিল লন্ডনে। বিমানে ১২৯ জন যাত্রী ছিলেন। বিমানটি গত বুধবার সন্ধেয় মায়ামি থেকে ওড়ে।

বিমানটি আটলান্টিক মহাসাগরের ওপর দিয়ে উড়ছিল। নিচে বিপুল জলরাশি। রাতের আকাশের বুক চিরে উড়ে চলা বিমানটি বিমানবন্দর ছেড়ে তখন প্রায় ১ ঘণ্টা উড়ে ফেলেছে।

এই সময় পাইলট সিদ্ধান্ত নেন তিনি বিমানটি আর সামনের দিকে নিয়ে যাবেননা। বরং ফিরে যাবেন মায়ামি বিমানবন্দরে। যেখান থেকে সেটি উড়েছিল সেখানে।

বিমানটি ওড়ার পর বিমানকর্মীরা লক্ষ্য করেন প্রথম শ্রেণিতে এক মহিলার মুখে মাস্ক নেই। বর্তমান পরিস্থিতিতে এটি নিয়ম বিরুদ্ধ। তাই তাঁরা বার বার ওই মহিলাকে মাস্ক পরতে অনুরোধ করতে থাকেন।

এমনকি তাঁকে নানা ধরনের মাস্ক পরতে দেন বিমানকর্মীরা। কিন্তু কোনও মাস্কই তাঁর পছন্দ হয়নি। কোনও মাস্ক তিনি পরবেন না বলে সাফ জানিয়ে দেন ওই মহিলা।

বিরক্ত হন বিমানের অন্য যাত্রীরাও। এভাবেই বিমান উড়তে থাকে আর বিমানকর্মীরাও যথাসাধ্য চেষ্টা চালাতে থাকেন ওই মহিলাকে মাস্ক পরাতে।

যখন এটা পরিস্কার হয়ে যায় যে কোনওভাবেই তাঁকে মাস্ক পরানো যাবেনা, তখন পাইলট জানিয়ে দেন তিনি আর বিমানটিকে লন্ডন নিয়ে যাবেননা। ফিরে যাবেন মায়ামি। সেইমত তিনি মায়ামি ফিরে আসেন। বিমানটিও বাতিল হয়। যাত্রীদের সকলকে নতুন করে বুকিং করতে হয়।

Miami International Airport
মায়ামি আন্তর্জাতিক বিমানবন্দর, ছবি – সৌজন্যে – উইকিমিডিয়া কমনস

এদিকে এত কাণ্ডের পরও কিন্তু ওই মহিলাকে গ্রেফতার করা হয়নি। তবে বিষয়টি খতিয়ে দেখে তাঁর ওই বিমান সংস্থার বিমানে ওঠা রদ করা হতে পারে।

Show More

Leave a Reply

Your email address will not be published.