Entertainment

রাজনীতিতে অনেকদিনই সফল দক্ষিণী হিরোরা

দক্ষিণ ভারতে সিনেমার জনপ্রিয়তা নিয়ে নতুন করে কিছু বলার অপেক্ষা রাখে না। আবার দক্ষিণী সিনেমায় প্রথম জীবনে নায়কের ভূমিকায় অভিনয় করে জনপ্রিয় হয়ে ওঠা এমন অনেকেই রাজনীতির আঙিনায় পা দিয়ে চরম সফল। সেই তালিকায় সুপারস্টার রজনীকান্তের নাম উঠবে কিনা তা আগামী ৩১ ডিসেম্বরই পরিস্কার হয়ে যাবে। তবে তার আগে দেখে নেওয়া যাক এখনও পর্যন্ত দক্ষিণী নায়ক নায়িকাদের রাজনীতির ময়দানে সাফল্যের ইতিহাস।

Marudur Gopalan Ramachandran

মারুথুর গোপালান রামচন্দ্রন। সংক্ষেপে এমজিআর। এক ডাকে যাঁকে চেনে গোটা ভারত। এমজিআর প্রথম জীবনে ছিলেন এক সফল নায়ক। একের পর এক হিট ছবি উপহার দিয়ে দর্শকদের মনে জায়গা করে নেওয়া এমজিআর পরবর্তীকালে ডিএমকে নেতা হিসাবে রাজনৈতিক জীবন শুরু করেন। রাজনীতির ময়দানেও দ্রুত সাফল্য আসে। তৈরি করেন নিজের দল এআইএডিএমকে। তামিলনাড়ুর ৩ বারের মুখ্যমন্ত্রী এমজিআর-কে ১৯৮৮ সালে ভারতরত্নে সম্মানিত করে ভারত সরকার।

Nandamuri Taraka Rama Rao


নান্দামুরি তারাকা রামা রাও। সংক্ষেপে এনটিআর। থিয়েটারে অভিনয় দিয়ে জীবন শুরু করে দ্রুত রূপোলি পর্দায় আত্মপ্রকাশ করেন তিনি। তাঁর খ্যাতি বিভিন্ন হিন্দু দেবতার চরিত্রে অভিনয় করে। অন্ধ্রপ্রদেশে ‘তেলেগু দেশম’ নামে একটি রাজনৈতিক দল গঠন করেন এনটিআর। পরবর্তীকালে তাঁর দল কংগ্রেসকে হারিয়ে অন্ধ্রে ক্ষমতা দখল করে। পরপর ৩ বার অন্ধ্রপ্রদেশের মুখ্যমন্ত্রী হন এনটিআর।

Jayalalithaa Jayaraman

গত বছর তাঁর মৃত্যু ঘিরে কম জল ঘোলা হয়নি। তিনি তামিলনাড়ুর কিমবদন্তী নেত্রী জয়ললিতা। যখন অভিনয় জগতে পা রাখেন তখন তিনি বয়সে ছোট। পরে নায়িকা হিসাবে আত্মপ্রকাশের পর ছিলেন সবচেয়ে ব্যয়বহুল অভিনেত্রী। এরপর রাজনীতির ময়দানেও তিনি সমানভাবে সফল। তামিল রাজনীতির ‘আম্মা’ তামিলনাড়ুর মুখ্যমন্ত্রী পদে বসার ক্ষেত্রে রেকর্ড গড়েছেন। এআইএডিএমকে-র ব্যানারে ৬ বার তামিলনাড়ুর মুখ্যমন্ত্রী হয়েছেন তিনি। আবার জীবনের এক সময়ে আর্থিক দুর্নীতির অভিযোগে কারাগারেও কাটাতে হয়েছে তাঁকে। যদিও তারজন্য তাঁর জয়প্রিয়তায় কোনও ভাটা পড়েনি কোনও দিন। তাঁর মৃত্যুর পর তামিলনাড়ু জুড়ে যেভাবে মানুষকে ভেঙে পড়তে দেখা গিয়েছিল, তাতে মনে হয়েছিল তাঁদের কোনও প্রিয়জন বুঝি মারা গেছেন।

Akkineni Nagarjuna

চিরঞ্জীবী নামটা জানেননা, এমন মানুষ ভূভারতে খুঁজে পাওয়া দুষ্কর। সিনেমার পর্দা কাঁপানো এই দক্ষিণী হিরো ২০০৮ সালে নতুন দল গড়েন। নাম দেন ‘প্রজারাজ্যম’। ভোট বাক্সে প্রজারাজ্যম এখনও তেমন ঝড় তুলতে না পারলেও চিরঞ্জীবী ছাড়বার পাত্র নন।

বড়ে মিঞাঁ তো বড়ে মিঞাঁ ছোটে মিঞাঁ সুভান আল্লা। দক্ষিণের হিরো পবন কুমারের ক্ষেত্রে এটা বলাই যায়। চিরঞ্জীবীর ছোট ভাই তিনি। সিনেমার পর্দায় দাদার মতই সফল। গড়েছেন নিজের রাজনৈতিক দল ‘জন সেনা’। আপাতত মন দিয়ে রাজনীতি করছেন তিনি।

এছাড়াও বেশ কয়েকজন দক্ষিণী নায়ক বিভিন্ন সময়ে রাজনীতির ময়দানে পা রেখেছেন। রাজনীতিতে তেমন সফল না হলেও কিছুটা ছাপ তাঁরাও রেখেছেন।

Show Full Article

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Back to top button