World

১ বছরের পরিশ্রম শেষে উদ্ধার ৩৩০০ বছর পুরনো বার্তা লেখা সারকোফেগাস

যে পাথরের কফিনটি উদ্ধার হয়েছে তার বয়স ৩ হাজার ৩০০ বছর। সেই কফিন মোড়া ছিল নানা লেখায়। যেখানে মৃতকে রক্ষা করার বিষয়ে স্পষ্ট বার্তা দেওয়া রয়েছে।

তখন ফারাও দ্বিতীয় রামেসিস রাজত্ব করছেন। তাঁর দরবারে যে অন্যতম প্রধান পারিষদরা ছিলেন তাঁদেরই একজনের একটি সারকোফেগাস বা পাথরের কফিন উদ্ধার করলেন প্রত্নতাত্ত্বিকরা।

যে পিরামিডের মধ্যে এটি ছিল সেখানে ঢেকাই ছিল একটা চ্যালেঞ্জ। অনেক পরিশ্রম করে অবশেষে সেখানে প্রবেশ করতে সমর্থ হন প্রত্নতাত্ত্বিকরা।

এটা সকলের জানা যে পিরামিডে প্রবেশ করাই একটা অন্যতম কঠিন কাজ। ফলে সেখানে প্রবেশ করে সারকোফেগাস পর্যন্ত পৌঁছনো সহজ কথা নয়।

গবেষকেরা ফারাও দ্বিতীয় রামেসিসের পিরামিড সংলগ্নই একটি গোপন স্থান থেকে এই কফিনটি উদ্ধার করেন। সেখানে সারকোফেগাসটি ঢাকা ছিল অনেক কিছু লেখায়।


মিশরের কায়রো শহরের দক্ষিণে সক্কারা নামে একটি জায়গায় উদ্ধার হয় কফিনটি। সেখানে এই আবিষ্কারকে একটা বড় আবিষ্কার হিসাবেই দেখা হচ্ছে।

যে লেখাগুলি ওই সারকোফেগাসের গায়ে দেখতে পাওয়া গেছে তাতে ওই পারিষদের মৃতদেহটিকে সযত্নে রক্ষা করার নানা বার্তাই দেওয়া রয়েছে।

টাহ-এম-উয়া নামে ওই পারিষদ দ্বিতীয় রামেসিসের কোষাগারের দায়িত্বে ছিলেন। তাঁর পিরামিডটি আগেই উদ্ধার হয়েছিল। কিন্তু তাতে প্রবেশ করা যাচ্ছিল না। প্রায় ১ বছর পরিশ্রম করে অবশেষে সেখানে প্রবেশের পথ খুঁজে পান প্রত্নতাত্ত্বিকরা।

তাঁরা এটাও জানতে পেরেছেন যে ওই সারকোফেগাসটি ভাঙা। সেখানে বহুকাল আগেই কেউ প্রবেশ করেছিল। লুঠ করা হয়েছিল সম্পদ। এমনকি দেহটি মমি করা হলেও সেই মমি করার জিনিসপত্রও উধাও হয়ে গেছে। — সংবাদ সংস্থার সাহায্য নিয়ে লেখা

Show Full Article
Back to top button