SciTech

বালি, মাটি খুঁড়তেই তলা থেকে বেরিয়ে এল প্রাচীন অত্যাধুনিক শহর

এমন একটা শহর এতদিন বালি আর মাটির তলায় লুকিয়ে ছিল। খোঁড়াখুঁড়ি না হলে এর খোঁজও পাওয়া যেত না। অথচ এই শহরের আবিষ্কার ইতিহাস বদলে দিল।

বিশাল বালি আর মাটির ধূধূ প্রান্তর। এতদিন এটাই ছিল এই এলাকার পরিচিতি। প্রত্নতাত্ত্বিকরা সেখানেই শুরু করেন মাটি খোঁড়া।

মনে হয়েছিল তলায় লুকিয়ে থাকতে পারে কোনও অজানা নিদর্শন। ভুল ভাবেননি তাঁরা। সত্যিই বালি, মাটির তলা থেকে একটু একটু করে উঁকি দিল একটা আস্ত শহর। কি পাওয়া গেল সেখানে?

প্রত্নতাত্ত্বিকদের অবাক করে এমন এক শহর বেরিয়ে এল যা অত্যাধুনিক বললেও সময়ের সাপেক্ষে কম বলা হয়। খ্রিস্টের জন্মেরও ২০০ বছর আগে এই শহর রমরম করত। বহু মানুষের বাস ছিল।

ছিল বর্ষার বৃষ্টি বা বন্যার জলকে ধরে রাখার জন্য একের পর এক কুয়ো বা জলাধার। বছরের যে সময় বৃষ্টিই হতনা সেই সময় ওই জলই বাঁচিয়ে রাখত বহু মানুষের বাসযুক্ত ওই শহরকে।

মিশরের আলেকজান্দ্রিয়া শহর থেকে সামান্য দূরে খননকার্য চালিয়ে এই নয়া শহরের খোঁজ মিলেছে যা মিশরের অন্যান্য অনেক আধুনিক শহরকেও পিছনে ফেলে দিতে পারে।

Egypt
মিশরে উদ্ধার হওয়া প্রাচীন সভ্যতার নিদর্শন, ছবি – আইএএনএস

প্রধান রাস্তার সঙ্গে যোগ ছিল অলি গলির। সব রাস্তায় ছিল নিকাশি ব্যবস্থা। ছিল পান্থনিবাস। অনেক কয়েনও পাওয়া গিয়েছে। পাওয়া গিয়েছে অনেক মাটির তৈরি জিনিস।

এই শহর যে একাধারে বহু মানুষের বাসের জায়গা এবং বাণিজ্যিক শহর ছিল তা বিভিন্ন নিদর্শন থেকে পরিস্কার। খ্রিস্টের জন্মের ৪০০ বছর পর কোনও এক প্রাকৃতিক বিপর্যয়ে মাটি ও বালির তলায় চাপা পড়ে যায় শহরটি। তারপর ফের তা সূর্যের আলো দেখল। — সংবাদ সংস্থার সাহায্য নিয়ে লেখা

Show More

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Back to top button