National

মা তাকে নিতে চায়নি, একাকী দুধের হাতিকে দত্তক নিল অন্য স্ত্রী হাতি

এক দলছুট হস্তিশাবকের সঙ্গে তার মা থাকা হাতির পাল যা করে তা চোখে জল আনবে। তবে সে দুধের হস্তিশাবকের জীবনে তারপরই এল আশ্চর্য সংযোগ।

কথায় বলে রাখে হরি মারে কে! এ কাহিনি অনেকটা তেমনই। বিচ্ছেদ ও মিলনের এক বৈপরীত্যে ভরা এক ছোট্ট হাতির কাহিনি। ২০২৩ সালের সেপ্টেম্বরে একটি হস্তিশাবকের জন্ম হয়। মা হাতি তাকে জন্ম দেওয়ার পর সে প্রথম ১৫ দিন তার সেই হাতির দলের সঙ্গেই ছিল।

কিন্তু ১৫ দিন পর কোনও কারণে সে দলছুট হয়ে যায়। বনকর্মীরা তাকে উদ্ধার করেন। ১৫ দিনের শিশু হাতিকে তার দলের সঙ্গে ফের মিলিয়ে দেওয়ার কম চেষ্টা বনকর্মীরা করেননি। কিন্তু সেই হাতির পাল ছোট্ট শাবকটিকে দলে নিতে সটান অস্বীকার করে দেয়। জন্মের ১৫ দিনের মধ্যেই সে একা হয়ে যায় এ পৃথিবীতে।


আকর্ষণীয় খবর পড়তে ডাউনলোড করুন নীলকণ্ঠ.in অ্যাপ

বনকর্মীরা এরপর বিজনৌরের নাজিবাবাদ জঙ্গলে তাকে ফেলে না রেখে নিয়ে চলে আসেন দুধওয়া ব্যাঘ্র অভয়ারণ্যে। সেখানে জঙ্গলে তাকে ছেড়ে দেওয়া হয়।

সেই জঙ্গলেই ছিল ৭ বছরের স্ত্রী হাতি দুর্গা। সে ওই একা হস্তিশাবককে দেখে এগিয়ে আসে। তাকে কাছে টেনে নেয়। তারপর একদম নিজের সন্তানের মতই তার লালনপালন শুরু করে।

ছোট্ট হাতি গৌরী যেন তার মাকে খুঁজে পায় দুর্গার মধ্যে। মায়ের স্নেহ যত্ন পেয়ে সেও এখন দারুণ খুশি। গৌরীর মা তাকে ফেরায়। কিন্তু অচেনা দুর্গা তাকে কাছে টেনে নেয়।

একরকম দত্তক নিয়ে নেয় গৌরীকে। এখন দুর্গাই তার মা। সেই তার অভিভাবক। দুর্গা ও গৌরীর এই সুন্দর বন্ধন বনকর্মীদেরও নিশ্চিন্ত করেছে। গৌরীকে নিয়ে তাঁদের চিন্তা দূর হয়েছে। — সংবাদ সংস্থার সাহায্য নিয়ে লেখা

Show More

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *