World

আচমকা লকডাউন মিলিয়ে দিল ২ জনকে, বিয়ে করছেন তরুণ তরুণী

লকডাউন বিয়েও দেয়! লকডাউন তাহলে শুধুই সমস্যার নাম নয়! অন্তত একটি ঘটনা সেটাই প্রমাণ করে দিল। একটা আচমকা লকডাউন বিয়ে দিল ২ জনের।

ছেলেটি কেমন তা মেয়েটি জানতে চেয়েছিলেন। ছেলেটিও তাই চেয়েছিলেন। স্থির হয়েছিল মেয়েটি যাবেন ছেলের বাড়িতে। সেখানে ছেলের সঙ্গেও কথা বলবেন। তাঁর পরিবারের সঙ্গেও কথা বলবেন। তারপর যদি পছন্দ হয় তাহলে বিয়ের কথা এগোবে।

সেই মত একটি শহর থেকে অন্য শহরে পাড়ি দেন ওই তরুণী। খুব দূর নয়। তাই গিয়ে কথা বলে বাড়ি ফেরা একদিনের মধ্যেই সম্ভব।

মেয়েটি গিয়ে পৌঁছন ছেলের বাড়িতে। কিন্তু ছেলেকে দেখার পর তাঁর প্রাথমিকভাবে পছন্দ হয়নি। হয়তো তিনি আর এগোতেন না। বাড়ি ফিরে না বলে দিতেন।

কিন্তু ছেলের বাড়িতে থাকাকালীনই শুনলেন স্থানীয় প্রশাসন শহরে লকডাউন ঘোষণা করেছে। ফলে এখন আর ফেরার উপায় নেই।

ছেলের পরিবার তরুণীকে তাঁদের বাড়িতেই থেকে যেতে বলে। এছাড়া কিছু করারও নেই। অগত্যা পুরো বিষয়টি ফোনে নিজের পরিবারকে জানিয়ে মেয়েটি ওই ছেলের বাড়িতেই থেকে যান।

একদিন দুদিন নয়, এভাবে লকডাউনে একটি সপ্তাহ কাটে। আর লকডাউনের এই একটি সপ্তাহ বদলে দেয় মেয়েটির ধারনা। তাঁর ভাল লেগে যায় ছেলেটিকে। ভাল লাগে তাঁর পরিবারকেও।

ছেলেটির পরিবারও ওই তরুণীকে অনুরোধ করে যেন তিনি বিয়েতে রাজি হয়ে যান। এরপর যা হওয়ার তাই হয়। তরুণী হাসিমুখে রাজি হন বিয়েতে। এখন শুধু আনুষ্ঠানিকভাবে ২ জনের চারহাত এক হওয়াটা বাকি।

ঘটনাটি ঘটেছে চিনে। ঝাও শিয়াওকিং নামে ২৮ বছরের ওই তরুণী শাংশি প্রদেশের বাসিন্দা। তিনি গিয়েছিলেন পাশের একটি শহরে।

তারপরই এই কাণ্ড। এখন অবশ্য একে অপরে সারাজীবনের ভালবাসার সন্ধান পেয়ে বেজায় খুশি। ২ জনই বলছেন ভাগ্যিস লকডাউনটা হয়েছিল!

Show More

Leave a Reply

Your email address will not be published.