World

গৃহস্থের বাড়ির দেওয়াল থেকে বেরিয়ে এল প্রচুর ফল

এক গৃহস্থের বাড়ির একটি দেওয়ালের পিছনে যে কি জমা রয়েছে তা গৃহস্থেরও জানা ছিলনা। যখন তা বেরিয়ে এল তখন তা দেখে তাজ্জব হয়ে গেলেন তিনি।

বাড়িতে কিছুদিন ধরেই পোকার উপদ্রব বেড়েছিল। এত পোকা আসছে কোথা থেকে সেটাই পরিস্কার হচ্ছিল না ওই বাড়ির লোকজনের। বাড়িঘর তো পরিস্কারই রয়েছে। তাহলে এত পোকার উপদ্রব কেন?

পোকার হাত থেকে মুক্তি পেতে তাঁরা খবর দেন পেস্ট কন্ট্রোল সংস্থাকে। তারা লোক পাঠায় ওই বাড়িতে। পোকামাকড় মারার ব্যবস্থা করতে সেখানে হাজির হন এক ব্যক্তি।

তিনিও পোকার উৎসস্থল খুঁজে বার করার চেষ্টা করতে থাকেন। অবশেষে তা জানতেও পারেন। ওই ব্যক্তি বাড়ির দোতলার একটি ঘরের দেওয়ালে ফুটো করেন। তখনই দেওয়ালের পিছনে জমে থাকা এক বিশেষ ফল হুড়হুড় করে বেরিয়ে আসতে থাকে।

তিনি যতই বার করেন ততই বার হতে থাকে। ফলের ঢিবি তৈরি হয়ে যায় ঘরে। যা দেখে কার্যত তাজ্জব হয়ে যান বাড়ির সদস্যরা।


জানা যায় সেগুলি ওক গাছের ফল। ভাল করে খতিয়ে দেখে তা এল কোথা থেকে তাও জানা যায়। ওই দেওয়ালের পিছনে ওক গাছের ফল জড়ো করছিল কাঠঠোকরারা। তাদের এই ওক গাছের ফল জমানোর ধাক্কায় সেখানে ৩১৭ কেজি ফল জড়ো হয়েছিল। যা বার করতে একটা ঢিবি তৈরি হয়ে যায়।

Woodpecker
কাঠঠোকরা, ছবি – সৌজন্যে – উইকিমিডিয়া কমনস

পেস্ট কন্ট্রোল সংস্থার ওই কর্মীর ধারনা ছিল দেওয়ালের পিছন থেকে নিশ্চয়ই কোনও মৃত প্রাণির দেখা মিলবে। কিন্তু বেরিয়ে এল ওক গাছের অগুন্তি ফল।

ওই ফল থেকেই পোকাগুলি জন্ম নিচ্ছিল। যা বাড়িময় ছড়িয়ে পড়েছিল। পরে দেখা যায় ক্যালিফোর্নিয়ার ওই বাড়িটিতে যে চিমনি ছিল, তার দেওয়ালে বাইরে থেকে ফুটো করে কয়েক বছর ধরে ওই ওক ফল জমিয়েছে কাঠঠোকরারা।

Show Full Article

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Back to top button