Business

ময়দার দিন হয়তো শেষ হল, দোকানের তাক ভরছে অন্য কিছু

‘নো ময়দা’ কথাটা ক্রমশ জনপ্রিয় হয়ে উঠছে। দোকানের তাকে তাকে এবার জায়গা করে নিচ্ছে এমন এক জিনিস যা ময়দার বিকল্প হয়ে সামনে আসছে।

ময়দা জিনিসটা ভারতের প্রায় সব কোণাতেই কম বেশি ব্যবহার হয়। কিন্তু সেই আদি অনন্ত ময়দার দিন বোধহয় শেষ হতে চলল। আগামী দিনে কি আদৌ মানুষ আর ময়দা খাবেন? সে প্রশ্ন উঠছে।

কারণ ক্রমশ যেভাবে বিভিন্ন দোকানের তাকে জায়গা করছে ময়দার বিকল্প এক শস্য, তাতে ময়দার চাহিদা আগামী দিনে কমবে বলেই মনে করছেন অনেকে।

এর পিছনে রয়েছে কর্পোরেটের হাতও। বিভিন্ন সংস্থার তরফে নো ময়দা প্রচার শুরু হয়েছে। যা ক্রমশ বাড়ছে। কিন্তু কি এমন শস্য এল যে ময়দাকে ব্রাত্য করতে উঠেপড়ে লেগেছেন সকলে।

ময়দার বিকল্প হিসাবে ক্রমশ বাজারে জায়গা করে নিচ্ছে বাজরা ও ভুট্টা। বাজরা এক সময়ে অধিকাংশ মানুষ এড়িয়ে চলতেন। অপেক্ষাকৃত দরিদ্র পরিবারে বাজরা খাওয়ার চল ছিল।

এখন অবশ্য সেখান থেকে ১৮০ ডিগ্রি ঘুরে স্বাস্থ্য সচেতন ভারত ক্রমশ বাজরার দিকে ঝুঁকছে। বাজরা ব্যবহার হচ্ছে রেডি টু কুক খাবার হিসাবেও। যেমন ওটস পাওয়া যায়।

এখনও বাজার দখল করে ময়দাকে ঠেলে নির্বাসনে পাঠাতে না পারলেও বাজরা বা ভুট্টার আটা ক্রমশ তার শিকড় বাজারে মজবুত করছে।

অনেক সংস্থাই এখন বাজরা বা ভুট্টার বিভিন্ন পণ্য বাজারে আনতে শুরু করেছে। মোটা অর্থ ব্যয় করে নতুন প্রকল্প হাতে নিচ্ছে তারা। তৈরি হচ্ছে নুডলস, পাস্তা, উপমা, খিচুড়ি, ইডলি-র মত খাবারও। সবই হচ্ছে বাজরা বা ভুট্টা দিয়ে।

কলকাতায় এখনও থাবা বসাতে না পারলেও অন্যান্য শহরে কিন্তু দোকানের তাক দখল করতে শুরু করেছে এসব জিনিস। — সংবাদ সংস্থার সাহায্য নিয়ে লেখা

Show More

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Back to top button