Feature

ভারতে রয়েছে আফ্রিকার গ্রাম, গ্রামের সকলেই আফ্রিকার মানুষ

এ দেশে গ্রামের সংখ্যা নেহাত কম নয়। কিন্তু এই সহস্র গ্রামের ভিড়ে এমন একটি গ্রাম রয়েছে যেখানে সকল বাসিন্দাই আফ্রিকার মানুষ।

এ গ্রামে পৌঁছলে মনে হবে যেন আফ্রিকায় এসে পড়েছেন। মনে হতেই পারে যে আদৌ ভারতে আপনি আছেন তো? নাকি আফ্রিকা পৌঁছে গেছেন! কারণও রয়েছে। গ্রামে শিশু থেকে বৃদ্ধ, পুরুষ মহিলা সকলেই আফ্রিকান। আফ্রিকান মানে জিনগতভাবে আফ্রিকান। বাসিন্দা হিসাবে ভারতীয়ই।

এ গ্রাম গুজরাটের গির অরণ্যের মধ্যে অবস্থিত। ঘন জঙ্গলে ঘেরা এই গ্রামে বহুকাল ধরেই বাস সাহারা মরুভূমি সংলগ্ন অঞ্চলের বান্টু জনজাতির মানুষজনের। এঁরা ভারতে পরিচিত সিদ্ধি আদিবাসী জনজাতির মানুষ হিসাবে।

কিন্তু এতদিন ভারতে থাকার পরও তাঁরা সকলেই সেই আফ্রিকান চেহারা ধরে রেখেছেন কীভাবে? প্রজন্মের পর প্রজন্ম সকলেই আফ্রিকান চেহারা ও অবয়ব নিয়ে জন্মগ্রহণ করে চলেছেন কীভাবে?

এর উত্তর লুকিয়ে আছে এঁদের দীর্ঘদিন ধরে চলে আসা এক প্রাচীন নিয়মে। যে নিয়ম আজও ওই গ্রামে কঠোরভাবে পালন করা হয়।


এই গ্রামের প্রাচীন রীতি হল বিয়ে হবে এই গ্রামের মধ্যেই। বাইরের কাউকে বিয়ে করতে পারবেন না গ্রামের পুরুষ বা নারীরা। যা তাঁদের একটি বিশেষ পরিচিতি ধরে রাখতে সাহায্য করছে।

তবে এই গ্রামের মানুষ পরিস্কার গুজরাটি ভাষায় অনর্গল কথা বলে যেতে পারেন। সংস্কৃতিও ভারতের সঙ্গে মিশে গেছে। তাঁরা ভারতীয় উৎসব অনুষ্ঠানেই মেতে ওঠেন। তাঁদের কাছে ভারতের উৎসবই তাঁদের উৎসব। কারণ তাঁরা আদপে তো ভারতীয়ই। তাঁরা ভারতেরই বাসিন্দা।

গুজরাটের আফ্রিকান গ্রাম বলে পরিচিত এই গ্রামের নাম জাম্বুর। অনেকে নিছক এই গ্রামের মানুষজনকে চোখের দেখা দেখতেও সেখানে হাজির হন।

Show Full Article

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Back to top button