SciTech

অনেকে বলেন উল্টো গাছ, বলার কারণ লুকিয়ে আছে গাছের মাথায়

এ গাছকে বলা হয় উল্টো গাছ। কারণ এ গাছের মাথাটা। সেই মাথাটায় লুকিয়ে আছে আসল ব্যাপার। যা থেকেই সকলের মনে হয় গাছগুলো উল্টো হয়ে রয়েছে।

গাছ কেমন হয় সকলের জানা। একদম ছোট গাছ থেকে বনস্পতি, সবের চেহারাই মানুষের চেনা। তবে এ পৃথিবীতে এমনও অনেক গাছ আছে যা দেখে চমকে যেতে পারেন যে কেউ। অবশ্যই তার আকার ও চেহারার জন্য। যেমন গাছ দেখে সকলে অভ্যস্ত তার থেকে একদম উল্টো এটি।

এই গাছ দেখে মনে হয় গাছটা বড় হওয়ার পর কেউ যেন গাছটাকে মূল থেকে উপড়ে নিয়ে উল্টো করে লাগিয়ে দিয়েছে। মানে শিকড়গুলো গাছের মাথায় ডালপালা পাতার মত থাকে।

আবার গাছের মাথা যেমন প্রচুর ডালপালা ও অজস্র পাতায় ঝাঁকড়া হয়ে থাকে, এ গাছ তেমন নয়। যেমন শিকড় অল্পই হয়, তেমনই গাছের মাথাটা।

Baobab
বাওবাব গাছ, ছবি – সৌজন্যে – উইকিমিডিয়া কমনস

গাছ মাটির তলার শিকড় থেকে কাণ্ড হয়ে উপরে ওঠে। আর এ গাছ যেন শিকড় থেকে ক্রমশ মাটির দিকে এগিয়ে আসে। এ গাছের আর এক বড় বিশেষত্ব হল এর দীর্ঘায়ু।

বলা হয় এ গাছ ৫ হাজার বছর পর্যন্ত দিব্যি বেঁচে থাকতে পারে। ৫০ মিটার পর্যন্ত লম্বা হতে পারে এ গাছ।

বাওবাব নামে এই গাছ মূলত দেখতে পাওয়া যায় আফ্রিকা ও অস্ট্রেলিয়ায়। এর মাথার দিকে চাইলে মনে হয় ডালপালাগুলো যেন হাওয়ায় উড়ে গেছে। গাছের মোটা গুঁড়ি সটান নেমে আসে নিচের দিকে। এখানেই এই ধরনের গাছ সকলকে অবাক করে।

Show More

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Back to top button