Business

ব্যাঙ্ক ধর্মঘটের প্রথম দিনেই নাজেহাল গ্রাহকরা

দেশব্যাপী ব্যাঙ্ক ধর্মঘট চালু হল সোমবার থেকে। আর ধর্মঘটের প্রথম দিনেই বেজায় সমস্যায় পড়েছেন গ্রাহকরা। যদিও এটিএমগুলি খোলা রয়েছে সকাল থেকে।

নয়াদিল্লি : রাষ্ট্রায়ত্ত ব্যাঙ্কগুলির বেসরকারিকরণের চেষ্টার বিরোধিতা সহ একগুচ্ছ দাবিতে সোমবার থেকে ২ দিন ব্যাপী ধর্মঘট শুরু করল ইউনাইটেড ফোরাম অফ ব্যাঙ্ক ইউনিয়নস। ৯টি ব্যাঙ্ক ইউনিয়ন একত্রে এই সংযুক্ত সংগঠনের ছাতার তলায় ধর্মঘটে সামিল হয়েছে।

দেশের ১০ লক্ষের ওপর ব্যাঙ্ক কর্মচারি এই ধর্মঘটে যুক্ত হয়েছেন। সোমবার সকাল থেকেই বিভিন্ন ব্যাঙ্কের শাখার সামনে ব্যানার টাঙিয়ে বিক্ষোভ প্রদর্শন করেন তাঁরা। অনেক গ্রাহক এসে হাজির হলে তাঁদের বুঝিয়ে ফিরিয়ে দেন তাঁরা।

গত শনিবার ছিল মাসের দ্বিতীয় শনিবার। আর ব্যাঙ্কের নিয়ম অনুযায়ী মাসের দ্বিতীয় ও চতুর্থ শনিবার ব্যাঙ্ক ছুটি। ফলে গত শনিবার থেকেই রাষ্ট্রায়ত্ত ব্যাঙ্কের সব শাখার দরজা বন্ধ।

সোমবার থেকে আবার শুরু হল ধর্মঘট। মঙ্গলবারও রয়েছে ধর্মঘট। ফলে টানা ৪ দিন ব্যাঙ্ক বন্ধ থাকছে। যা গ্রাহকদের অনেকের মাথায় হাত ফেলেছে।


এটিএম চললেও অনেকেই মনে করছেন যতক্ষণ টাকা রয়েছে এটিএম চালু থাকবে। তারপর এটিএমগুলিও স্তব্ধ হয়ে যাবে। তখন টাকার প্রয়োজন পড়লে কিছুই প্রায় করার থাকছে না।

যদিও ধর্মঘটে তাঁরা অনড় বলেই জানিয়ে দিয়েছেন ব্যাঙ্ককর্মীরা। সব মিলিয়ে ব্যাঙ্ক ধর্মঘটের জেরে গ্রাহকরা বেজায় সমস্যায় পড়েছেন।

কেন্দ্রীয় সরকারের বেসরকারিকরণের সিদ্ধান্তের বিরুদ্ধে ৪টি সাধারণ বীমা সংস্থাও আগামী ১৭ মার্চ ধর্মঘটে যাচ্ছে। ১৮ মার্চ ধর্মঘট করতে চলেছে এলআইসি-র কর্মচারি সংগঠনগুলি। — সংবাদ সংস্থার সাহায্য নিয়ে লেখা

Show Full Article
Back to top button