National

মানুষ পৌঁছতে পারছে না, এখন অন্যতম ভরসার নাম উড়ন্ত গরুড়

পুরাণে গরুড় পাখির উল্লেখ মেলে। ভগবান বিষ্ণুর বাহনও গরুড়। এবার আর এক উড়ন্ত গরুড় প্রধান ভরসা হয়ে দাঁড়িয়েছে। মানুষ পৌঁছতে না পারলেও গরুড় পৌঁছ যাচ্ছে।

ভারতের পুরাণে যে কটি পাখির উল্লেখ মেলে তার অন্যতম গরুড়। ভগবান বিষ্ণুর বাহন গরুড়কে নিয়ে নানা কাহিনিও রয়েছে। এবার আধুনিক গরুড়ে ভরসা রাখছে প্রশাসন।

বন্যায় ভাসছে অসম। ইতিমধ্যেই ১০৭ জনের মৃত্যু হয়েছে। অনেক মানুষের খোঁজ নেই। হাজার হাজার হেক্টর জমি জলের তলায় চলে গেছে। গবাদি পশুর ক্ষতি অপরিসীম।

অসমের ৩০টি জেলা জলের তলায় চলে গেছে। বহু এলাকায় বিদ্যুৎ নেই, নেই পানীয় জল। ৫৪ লক্ষের ওপর মানুষ বন্যার্ত। এখনও বহু মানুষ চারপাশে জলের মধ্যে আটকে রয়েছেন। তাঁদের কাছে উদ্ধারকারী দল পর্যন্ত পাঠানো মুশকিল হচ্ছে।

অসমের এমন সব জায়গায় এখন অন্যতম ভরসার নাম গরুড়। গরুড় নামক ড্রোনে খাবার, ওষুধ ও পানীয় জল পাঠানো হচ্ছে দুর্গত মানুষের কাছে।

প্রসঙ্গত বন্যার জেরে ৩ লক্ষের ওপর মানুষ চরম খাদ্যাভাব, পানীয় জলের অভাবে ভুগছেন। কোথাও মানুষ আটকে আছে কিনা তাও আকাশ পথে পরিদর্শন করে খবর দিচ্ছে গরুড়।

অসমের বন্যা পরিস্থিতি ক্রমশ ভয়াবহ হওয়ায় উদ্বিগ্ন প্রশাসন। বায়ুসেনাকে কাজে লাগানো হচ্ছে দুর্গম জায়গায় আটকে পড়া মানুষজনকে উদ্ধার করার জন্য।

শিলচরের যা পরিস্থিতি তা এর আগে কখনও এখানকার মানুষ দেখেননি। ব্রহ্মপুত্র, বরাক ও তাদের উপনদীগুলি বিপদ সীমার ওপর দিয়ে বইছে। ফলে শহর থেকে গ্রাম সর্বত্র জল আর জল। সেনা, এনডিআরএফ, এসডিআরএফ কর্মীরা দিনরাত এক করে উদ্ধারকাজ চালাচ্ছেন। — সংবাদ সংস্থার সাহায্য নিয়ে লেখা

Show More

Leave a Reply

Your email address will not be published.