Kolkata

তৃণমূলের প্ৰার্থী তালিকায় সেলেব্রিটির ছড়াছড়ি, ভোটের মঞ্চে নায়ক-নায়িকা-ক্রীড়াবিদ

আসন্ন লোকসভা নির্বাচনে মঙ্গলবার নিজেদের প্রার্থী তালিকা প্রকাশ করল রাজ্যের শাসক দল তৃণমূল কংগ্রেস। রাজ্যের ৪২টি লোকসভা কেন্দ্রের ৪১ শতাংশ আসনে মহিলা প্রার্থীদের দাঁড় করিয়েছে তৃণমূল। মহিলা প্রার্থীদের মধ্যে রয়েছেন এযুগের বাংলা সিনেমার সেলেব্রিটি মিমি চক্রবর্তী ও নুসরত জাহান।


এদিন প্রার্থী তালিকা প্রকাশ করে রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় জানান, প্রখ্যাত ইতিহাসবিদ ও হার্ভার্ড বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রফেসর সুগত বসু এবার প্রার্থী হচ্ছেন না। সাংসদ হিসাবে নিজের প্রথম মেয়াদেই ছাপ ছেড়ে যাওয়া সুগতবাবুকে তাঁর বিশ্ববিদ্যালয় এবার অনুমতি না দেওয়ায় তিনি প্রার্থী হতে পারবেন না বলে জানান মুখ্যমন্ত্রী। তাঁর জায়গায় যাদবপুর কেন্দ্র থেকে এবার প্রার্থী হচ্ছেন বাংলা সিনেমার নায়িকা মিমি চক্রবর্তী।

Mimi Chakraborty
ফাইল : মিমি চক্রবর্তী, ছবি – আইএএনএস

চলতি সময়ের বাংলা সিনেমার অপর পরিচিত নায়িকা নুসরত জাহান এবার প্রার্থী বসিরহাট কেন্দ্র থেকে। তিনি বর্তমান সাংসদ ইদ্রিস আলির জায়গায় ২০১৯ লোকসভা নির্বাচনে তৃণমূল প্রার্থী হলেন। অন্যদিকে বর্তমান সাংসদ ও অভিনেতা দীপক অধিকারী (দেব) এবারও ঘাটাল কেন্দ্র থেকে লোকসভা নির্বাচনে প্ৰার্থী। অর্জুন পুরস্কার বিজয়ী প্রাক্তন ফুটবলার প্রসূন বন্দ্যোপাধ্যায়ও তাঁর বর্তমান কেন্দ্র হাওড়া থেকে তৃণমূলের টিকিটে পুনরায় দাঁড়াচ্ছেন।



অভিনেত্রী শতাব্দী রায় তাঁর বীরভূম আসন থেকে এবারও লড়বেন। তবে বর্ষীয়ান অভিনেত্রী মুনমুন সেনের এবার কেন্দ্র বদল হয়েছে। একসময়ের ডাকসাইটে নেতা সিপিএম-এর বাসুদেব আচারিয়া-কে পরাজিত করে বাঁকুড়া আসনটি তৃণমূলের ভাঁড়ারে নিয়ে আসা মুনমুন এবার আসানসোল কেন্দ্র থেকে প্রার্থী। এই আসনটি ২০১৪ লোকসভা ভোটে বিজেপির পকেটে গিয়েছিল। জিতেছিলেন গায়ক বাবুল সুপ্রিয়, পরবর্তীকালে যিনি কেন্দ্রীয় মন্ত্রিত্বও পান।

(সংবাদ সংস্থার সাহায্য নিয়ে লেখা)

News Desk

নীলকণ্ঠে যে খবর প্রতিদিন পরিবেশন করা হচ্ছে তা একটি সম্মিলিত কর্মযজ্ঞ। পাঠক পাঠিকার কাছে সঠিক ও তথ্যপূর্ণ খবর পৌঁছে দেওয়ার দায়বদ্ধতা থেকে নীলকণ্ঠের একাধিক বিভাগ প্রতিনিয়ত কাজ করে চলেছে। সাংবাদিকরা খবর সংগ্রহ করছেন। সেই খবর নিউজ ডেস্কে কর্মরতরা ভাষা দিয়ে সাজিয়ে দিচ্ছেন। খবরটিকে সুপাঠ্য করে তুলছেন তাঁরা। রাস্তায় ঘুরে স্পট থেকে ছবি তুলে আনছেন চিত্রগ্রাহকরা। সেই ছবি প্রাসঙ্গিক খবরের সঙ্গে ব্যবহার হচ্ছে। যা নিখুঁতভাবে পরিবেশিত হচ্ছে ফোটো এডিটিং বিভাগে কর্মরত ফোটো এডিটরদের পরিশ্রমের মধ্যে দিয়ে। নীলকণ্ঠ.in-এর খবর, আর্টিকেল ও ছবি সংস্থার প্রধান সম্পাদক কামাখ্যাপ্রসাদ লাহার দ্বারা নিখুঁত ভাবে যাচাই করবার পরই প্রকাশিত হয়।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Back to top button