Entertainment

৩০ জনকে খেতে দিয়ে তারপর খেতে বসলেন ঐশ্বর্য রাই

সেদিন ৩০ জনকে খেতে দিয়ে তারপর নিজে খেতে বসেছিলেন অভিনেত্রী ঐশ্বর্য রাই। সেই কাহিনি সকলকে বললেন সুরকার বিশাল দদলানি। স্ত্রীর প্রশংসায় পঞ্চমুখ অভিষেক বচ্চনও।

সেবার একটা গানের অনুষ্ঠানে বেরিয়েছিল ৩০ জনের দল। যে দলে ছিলেন অমিতাভ বচ্চন, ঐশ্বর্য রাই বচ্চন, অভিষেক বচ্চন সহ অনেকে। সেই দলে ছিলেন সুরকার বিশাল দদলানিও। সাধারণত খাওয়ার সময় বিশাল অমিতাভ, ঐশ্বর্য, অভিষেকদের সঙ্গে খেতে বসলেও বাকিরা আলাদাই বসতেন।

তা ট্যুরের মাঝে একদিন ইউনিটের সকলে আবদার করেন তাঁরা সকলেই অমিতাভ বচ্চনের সঙ্গে ডিনার করবেন। অমিতাভ বচ্চন রাজি হয়ে যান।

সাধারণত এতজন একসঙ্গে খেলে সেখানে বাফের আয়োজন করা হয়। পরিবেশন করার জন্য অনেক লোক থাকেন। কিন্তু তাতে রাজি হলেন না ঐশ্বর্য। তিনি বললেন সকলকে তিনি পরিবেশন করে খাওয়াবেন।

সেদিন সকলকে ডেজার্ট অর্থাৎ খাবার শেষ পাতের মিষ্টি জাতীয় খাবারটিও পরিবেশন করে তারপর নিজে খেতে বসেন ঐশ্বর্য। একটি টিভি রিয়েলিটি শোয়ের মাঝে সেই অভিজ্ঞতা ভাগ করে নিলেন সুরকার বিশাল দদলানি।

ঐশ্বর্য সেদিন পরিবেশন না করলেও পরিবেশন করার লোকের অভাব হতনা। এটাও মনে করার কারণ নেই যে ঐশ্বর্য যা করেছেন তা পাবলিসিটির জন্য। কারণ সেখানে কোনও ক্যামেরা ছিলনা। তাই সেদিন সকলের মনে হয়েছিল তাঁরা ভাগ্যবান যে ঐশ্বর্য রাই তাঁদের খাবার পরিবেশন করলেন।

অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন অভিষেক বচ্চনও। তিনি বলেন, ঐশ্বর্যের মধ্যে ভারতীয় মূল্যবোধ ভীষণভাবে রয়েছে। তাঁদের মেয়েকেও ঐশ্বর্য সেই মূল্যবোধ সম্বন্ধে অবহিত করেন। ঐশ্বর্য যা করেছেন তাঁর জন্য সেজন্য অভিষেক স্ত্রী ঐশ্বর্যকে ওই মঞ্চ থেকেই ধন্যবাদ জানান। — সংবাদ সংস্থার সাহায্য নিয়ে লেখা

Show More

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Back to top button