State

খুব শান্তির হল না সপ্তম দফা

বাংলায় এবার ভোটের সকাল মানেই অশান্তির খবর। গত ৬ দফায় তার অন্যথা হয়নি। এদিন সপ্তম দফাতেও হল না। তবে তুলনামূলকভাবে কিছুটা কম।

বাংলায় এবার ৮ দফায় বিধানসভা নির্বাচন। আর সেই ৮ দফার মধ্যে ৭ দফা এদিন শেষ হল। এর আগের ৬ দফায় দেখা গেছে নানা হিংসা, রক্তপাত, মৃত্যুর ছবি। চরম অশান্তি হয়েছে বিভিন্ন জায়গায়। এদিন সপ্তম দফাতেও শান্তির ভোট হল না ঠিকই, তবে এদিন তুলনামূলকভাবে অশান্তি কম।

এদিন দিনভরই কোথাও তৃণমূল প্রার্থী অভিযোগ করেছেন বিজেপির বিরুদ্ধে। আবার কোথাও বিজেপি প্রার্থীর অভিযোগ ছিল তৃণমূলের বিরুদ্ধে।

তৃণমূল প্রার্থী ফিরহাদ হাকিম তাঁর কেন্দ্রে ঘোরার সময় তাঁকে লক্ষ্য করে জয় শ্রীরাম ধ্বনি উঠল। আবার অন্যদিকে ভবানীপুরের বিজেপি প্রার্থী রুদ্রনীল ঘোষকে শুনতে হল জয় বাংলা স্লোগান।

এদিন দিনভর আসানসোল দক্ষিণের বিজেপি প্রার্থী অগ্নিমিত্রা পল ছিলেন যথেষ্ট তৎপর। যেখানেই কিছু খবর পেয়েছেন, ছুটে গেছেন। টোটো থেকে খুলে দিয়েছেন তৃণমূলের স্টিকার, স্কুটারের চাবি কেড়ে নিয়েছেন স্কুটারে তৃণমূলের স্টিকার থাকায়।

অগ্নিমিত্রার অভিযোগ সবই হয়েছে বুথের ২০০ মিটারের মধ্যে। কোথাও আবার তৃণমূল ভোটারদের প্রভাবিত করতে মাংস-ভাতের আয়োজন করেছে বলে অভিযোগ করে সেখানে হাজির হয়েছেন। তাঁকে দেখে অনেকে ভাতের থালা ফেলেই পালিয়েও গেছেন।

মালদা থেকে এদিন কিছু সংঘর্ষের খবর মিলেছে। পাণ্ডবেশ্বরে এক তৃণমূল এজেন্টকে বুথে ঢুকতে বাধা দেয় কেন্দ্রীয় বাহিনী বলে অভিযোগ। তাঁকে কেন্দ্রীয় বাহিনীর জওয়ানরা মারধর করেন বলেও অভিযোগ। এছাড়াও বেশকিছু জায়গায় তৃণমূল ও বিজেপি সমর্থকদের মধ্যে হাতাহাতির ঘটনা ঘটে।

Show More

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Back to top button