World

১৩ বছর নদীর তলায় থাকা ক্যামেরা ফিরিয়ে দিল অমূল্য ধন

ক্যামেরাটা হাতে পাওয়ার পর মনে হয়েছিল তা নিছকই একটি জঞ্জালে পরিণত হয়েছে। কিন্তু তা যে কি অমূল্য ধন ফিরিয়ে দিল তা যাঁর গিয়েছিল তিনি বুঝলেন।

২০১০ সালে নদীতে ব়্যাফটিং করার সময় আচমকা হাত থেকে ডিজিটাল ক্যামেরাটি পড়ে গিয়েছিল। তারপর অনেক খুঁজেও তার হদিশ মেলেনি। সেই ক্যামেরায় অনেক না ভোলা স্মৃতির ছবি ছিল। সেগুলি চিরতরে হারিয়ে যাওয়াটা মেনে নিতে পারছিলেন না ক্যামেরার মালকিন।

তারপর কেটে গেছে ১৩টা বছর। ঘটনাটি ঘটেছিল কলোরাডো নদীতে। তারই কাছের অ্যানিমাস নদীতে মাছ ধরছিলেন এক ব্যক্তি।

তখনই তাঁর নজরে পড়ে নদীর স্বচ্ছ জলের তলার বালিতে কিছু একটা আটকে আছে। তিনি সেটি বালি থেকে বার করে আনেন। দেখে বুঝতে পারেন সেটি একটি ডিজিটাল ক্যামেরা। কিন্তু তা প্রায় জঞ্জালে পরিণত হয়েছে।

ওই ব্যক্তি বাড়ি ফিরে ক্যামেরাটি খুলে ফেলেন। নিছকই কৌতূহলবশত কাজটি করেন তিনি। তারপর ক্যামেরার মেমোরি কার্ডটি বার করে সেটি মুছে পরিস্কার করে কম্পিউটারে দেখার চেষ্টা করেন ছবি আদৌ দেখা যাচ্ছে, নাকি ১৩ বছর জলের তলায় থেকে নষ্ট হয়ে গেছে।


তিনি অবাক হয়ে দেখেন সব ছবি ঠিক রয়েছে। তিনি সেই ছবির কয়েকটি সোশ্যাল মিডিয়ায় আপলোড করে দেন। যা নজরে পড়তে সময় নেয়নি ক্যামেরার মালকিন কোরাল অ্যামায়ি-র।

কোরাল ওই ব্যক্তির সঙ্গে যোগাযোগ করে ক্যামেরাটি উদ্ধার করেন। ক্যামেরাটি নষ্ট হয়ে গেছে, কিন্তু মেমোরি কার্ডটির ভিতর থাকা ছবিগুলি অক্ষত রয়েছে। যা দেখে কার্যত আনন্দে আপ্লুত কোরাল।

কোরাল জানিয়েছেন তাঁর জীবনের বেশ কিছু বিরল মুহুর্ত এই ছবিগুলিতে ধরা রয়েছে। দেখা গেছে তিনি যেখানে হারিয়েছিলেন ক্যামেরাটি সেখান থেকে ২ কিলোমিটার দূরে সেটি পাওয়া গেল।

Show Full Article

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Back to top button