National

কেন্দ্রীয় মন্ত্রিসভায় ৯ নতুন মুখ, ৪ মন্ত্রীর পদোন্নতি

২০১৯-এর আগে কেন্দ্রীয় মন্ত্রিসভায় রদবদল করলেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী। ৯ জন নতুন মন্ত্রী এদিন শপথ গ্রহণ করেন। এছাড়া ৪ জন প্রতি‌মন্ত্রী পদোন্নতি হয়ে পূর্ণমন্ত্রীর দায়িত্ব পেয়েছেন। বাকি ৯ জন প্রতিমন্ত্রী হিসাবে দায়িত্ব পাচ্ছেন। তবে মন্ত্রিসভার রদবদলে সবচেয়ে আলোচ্য ছিল রেল ও প্রতিরক্ষা মন্ত্রক।

প্রতিরক্ষার দায়িত্ব যে অরুণ জেটলির হাতে আর থাকছে না তা একরকম পরিস্কার করে দিয়েছিলেন তিনি। জানিয়েছিলেন হয়তো খুব দ্রুত অব্যাহতি পেতে চলেছেন এই দায়িত্ব থেকে। তাহলে দেশের গুরুত্বপূর্ণ এই মন্ত্রক কার হাতে যেতে চলেছে‌? তা নিয়ে জল্পনা তুঙ্গে উঠেছিল। এখানেই চমক দিলেন প্রধানমন্ত্রী। নির্মলা সীতারমনকে নিয়ে এলেন প্রতিরক্ষার দায়িত্বে।

রেলমন্ত্রক পেতে চলেছেন পীযূষ গোয়েল। শক্তিমন্ত্রক থেকে পদোন্নতি হয়ে রেলই পীযূষ গোয়েলের আগামী মন্ত্রিত্ব। এছাড়া পেট্রোলিয়ামমন্ত্রী ধর্মেন্দ্র প্রধান ও স্বাধীন দায়িত্বপ্রাপ্ত সংখ্যালঘু বিষয়ক মন্ত্রী মুখতার আব্বাস নাকভি পূর্ণমন্ত্রীর দায়িত্ব পেতে চলেছেন। এদিন পদোন্নতি হওয়া ৪ মন্ত্রীর পাশাপাশি ৯ নতুন প্রতিমন্ত্রী রাষ্ট্রপতি ভবনে শপথ গ্রহণ করেন।

৯ নতুন প্রতিমন্ত্রীর মধ্যে রয়েছেন আরার সাংসদ আরকে সিং, বাগপতের সাংসদ সত্যপাল সিং, বক্সারের সাংসদ অশ্বিনী কুমার চৌবে, টিকমগড়ের সাংসদ বীরেন্দ্র কুমার, যোধপুরের সাংসদ গজেন্দ্র শেখাওয়াত, উত্তর কানাড়ার সাংসদ অনন্ত কুমার হেগড়ে, রাজ্যসভার সাংসদ শিবপ্রতাপ শুক্ল। এছাড়া প্রাক্তন আইএএস কেজে আলফোন্স ও প্রাক্তন আইএফএস হরদীপ পুরি। এই ২ জন সাংসদ নন। এঁদের শপথগ্রহণ করান রাষ্ট্রপতি রামনাথ কোবিন্দ। উপস্থিত ছিলেন উপরাষ্ট্রপতি বেঙ্কাইয়া নাইডু, প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী, বিজেপি সভাপতি তথা সাংসদ অমিত শাহ, লোকসভার স্পিকার সুমিত্রা মহাজন সহ কেন্দ্রীয় মন্ত্রিসভার মন্ত্রীরা।


এদিন শপথগ্রহণে বিজেপির নতুন বন্ধু জেডিইউ-র একজন হলেও মন্ত্রীত্ব পাবেন বলে জল্পনা তুঙ্গে উঠেছিল। কিন্তু সেই জল্পনায় জল ঢেলে এদিন মন্ত্রিসভার সম্প্রসারণের সঙ্গে দূরত্ব বজায় রাখলেন নীতীশ কুমার। জেডিইউ-র তরফে জানানো হল এটা পুরোপুরি বিজেপির আভ্যন্তরীণ বিষয়। শপথগ্রহণ অনুষ্ঠানে যোগ দেয়নি শিবসেনাও। অন্যদিকে কংগ্রেসের তরফে নতুন মন্ত্রীদের শুভেচ্ছা জানিয়ে বলা হয়েছে কংগ্রেস তাঁদের অঙ্গীকার ও কাজের দিকে নজর রাখবে। এদিন শপথগ্রহণ অনুষ্ঠানের শেষে ব্রিকস সম্মেলনে যোগ দিতে চিন উড়ে যান প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী।

Show Full Article

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Back to top button