World

স্টেডিয়ামে গলা ফাটাবেন তাঁরাও, খুশিতে উচ্ছল সৌদি আরবের মহিলারা

অবশেষে স্বাধীনতার স্বাদ পেলেন সৌদি আরবের ক্রীড়াপ্রেমী মহিলারা। এবার থেকে স্টেডিয়ামে বসে পুরুষদের সঙ্গে তাঁদের পছন্দের দলের হয়ে গলা ফাটাতে পারবেন সৌদি মহিলারাও।

এতদিন স্টেডিয়ামে গিয়ে খেলা দেখার অধিকার সৌদি মহিলাদের ছিলনা। কিন্তু সব কিছু ঠিকঠাক থাকলে আগামী বছর থেকেই বদলে যাবে সৌদি আরবের স্টেডিয়ামের চেহারা। ইতিমধ্যেই এই ঘোষণাকে বাস্তব রূপ দিতে উঠেপড়ে লেগেছেন সে দেশের ক্রীড়া কর্তারা। দেশের ৩টি প্রধান শহর রিয়াধ, জেড্ডা ও দাম্মামের স্টেডিয়ামকে ঢেলে সাজানোর কাজ পুরোদমে শুরু হয়ে গেছে।

গত মাসেই দেশের রয়্যাল ডিক্রি-তে নিশ্চিত করা হয়েছিল আগামী বছর থেকে মহিলাদের গাড়ি চালানোর অধিকার। এমনকি দেশের বিভিন্ন সিনেমা হলে গিয়ে ছবি দেখার ক্ষেত্রে শুধুমাত্র মেয়েদের জন্য নিষেধের বেড়া তুলে দেওয়ার নির্দেশও দেওয়া হয়েছে। ২০১৮-তেই নির্দেশ কার্যকরী হবে বলে খবর। এবার মহিলাদের সপরিবারে খেলা দেখতে যাওয়ার সুযোগ সৌদি আরবের নারী স্বাধীনতার মুকুটে নতুন পালক যোগ করল।

সৌদি আরবে, বিশেষ করে সুন্নি সম্প্রদায়ের মেয়েদের মধ্যযুগীয় নিষেধ এতদিন মেনে আসতে হত। কিন্তু ছবিটা পাল্টাতে থাকে সৌদি আরবের রাজা প্রিন্স মহম্মদ বিন সলমনের কারণে। তাঁর ‘ভিশন ২০৩০’ নামের প্রকল্পে দেশের সামাজিক ও অর্থনৈতিক পরিবর্তন করার কথা বলেছেন প্রিন্স। যার মধ্যে নারীর অধিকার রক্ষার বিষয়টিকে যথেষ্ট গুরুত্ব সহকারে দেখা হয়েছে। এর আগে বিভিন্ন আন্তর্জাতিক নারী সংগঠন ইসলামিক দেশগুলিতে মেয়েদের নানারকম অমানবিক নিয়মে বেঁধে ফেলার বিরুদ্ধে সরব হয়েছে। এই ঘোষণা তাদের সেই আন্দোলনের পথে অন্যতম জয়।


Show Full Article

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Back to top button