World

মাইনাস ৬১ ডিগ্রিতে নামল পারদ, বন্ধ স্কুল

ঠান্ডারও একটা সহ্য মাত্রা হয়। এখানে পারদ তাও কার্যত পার করে গেছে। নেমেছে মাইনাস ৬১ ডিগ্রিতে। তার মধ্যেই জীবন চালাচ্ছেন স্থানীয়রা।

দিল্লিতে ১-এর ঘরে ঘুরছে পারদ। রাজস্থানের অনেক জায়গায় শূন্য। হিমাচল প্রদেশ, উত্তরাখণ্ড, উত্তরপ্রদেশের একটা অংশও অসহ্য ঠান্ডায় কাঁপছে। জম্মু কাশ্মীরে এখন চলছে প্রবল ঠান্ডার সময়। সেখানে কার্গিল, দ্রাস নেমে যাচ্ছে মাইনাস ১৫-২০ ডিগ্রিতেও।

কিন্তু এ অঞ্চলের ঠান্ডার সামনে সেসব ঠান্ডাও মামুলি। কারণ একটি অঞ্চলে পারদ নেমেছে মাইনাস ৬১ ডিগ্রিতে। যা কার্যত অসহ্য হয়ে উঠেছে স্থানীয়দের কাছেও। যাঁরা কার্যত সারাবছরই ঠান্ডার মধ্যেই দিন কাটান।

রাশিয়ার পূর্বপ্রান্ত জুড়েই প্রবল ঠান্ডা। ঠান্ডার কবলে জবুথবু অনেক জনপদ। সেখানেই ওলনেস্কি জেলা জুড়ে পারদ নেমে গেছে মাইনাস ৬১ ডিগ্রিতে।

মাইনাস ৬১ ডিগ্রি শুনেই অনুমেয় যে সেখানে ঠান্ডার চেহারাটি ঠিক কেমন। অনুভূতিটাই বা কেমন। কিন্তু তার মধ্যেই সেখানকার মানুষ জনজীবনকে সচল রেখেছেন। কাজকর্ম যেমন হয় তেমনই হয়ে চলছে। খালি প্রথম শ্রেণি থেকে অষ্টম শ্রেণি পর্যন্ত স্কুলের ক্লাস স্থগিত করা হয়েছে।


প্রশাসনের তরফে এই অস্বাভাবিক ঠান্ডার মধ্যে প্রত্যেককেই নিজের নিজের গাড়ি আলাদা করে রাখতে বলা হয়েছে। প্রয়োজনীয় খাবার থেকে নিত্যপ্রয়োজনীয় জিনিসপত্রও মজুত রাখতে অনুরোধ করা হয়েছে।

যদি ওই অঞ্চল ছেড়ে কিছুদিনের জন্য কোথাও যাওয়ারও দরকার পড়ে তাহলেও রসদ মজুত রাখতে পরামর্শ দেওয়া হয়েছে মানুষকে।

রাশিয়ার কয়েকটি জায়গায় শীতের সময় পারদ এখানেও যে নামে তা জানা। তবে এখানকার জনজীবন তার মধ্যেও যতটা সম্ভব স্বাভাবিক থাকে। মানুষ এই ঠান্ডাতেও তাঁদের কাজ চালিয়ে যেতে পারেন। — সংবাদ সংস্থার সাহায্য নিয়ে লেখা

Show Full Article

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Back to top button