World

ঠাকুমার জন্য ২ দেশের সীমানায় দাঁড়িয়ে বিয়ে করলেন বরকনে

২টি দেশে দাঁড়িয়ে আছে ২ পরিবার। দূরত্ব খুব বেশি হলে ১০ ফুটের। মাঝে সীমান্ত। সেখানেই কেবল ঠাকুমার জন্য চার হাত এক হল পাত্র পাত্রীর।

পরিবারের প্রতি ভালবাসার মাঝে সীমানা বাধা হয়ে দাঁড়াতে পারল না। একে অপরকে ছুঁয়ে দেখা হল না। তবে চোখের দেখা তো হল। তাও আবার মাত্র ১০ ফুটের মত দূরত্বে। এটাই বা কম কি!

পাত্রী তো বেজায় খুশি। তাঁরই জন্য এই বিশেষ বিয়ের আয়োজন। যা হল একদম ২ দেশের সীমানায় দাঁড়িয়ে। এক দেশে হল বিয়ে। অন্য দেশের মাটিতে দাঁড়িয়ে সেই বিয়ে সামনে থেকে দেখলেন কনের বাবা-মা ও ৯৬ বছরের ঠাকুমা।

কনে চেয়েছিলেন তাঁর জীবনের সবচেয়ে খুশির দিনটা যেন প্রত্যক্ষ করতে পারেন তাঁর ঠাকুমা। কোনও ভার্চুয়াল দেখা নয়। কাছে দাঁড়িয়ে দেখা। সেটা হলও।

মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র ও কানাডার মধ্যে এখন করোনার কারণে যাতায়াতে মানা রয়েছে। এদিকে আমেরিকাবাসী পাত্রীর খুব ইচ্ছা ছিল যে তাঁর বিয়ের মুহুর্ত যেন তাঁর ঠাকুমা দেখতে পান। সাপও মরবে আর লাঠিও ভাঙবে না এমন একটি উপায় বার হল।

পাত্রপাত্রী বিয়ের সাজে হাজির হলেন ২ দেশের সীমান্তে। যেখানে সীমান্ত ২ দেশকে আলাদা করেছে। ২ দেশের সীমান্ত বোঝাতে সেখানে বসানো আছে সারি দিয়ে ট্রাফিক কোন। তারই এপাশে হল বিয়ে। একেবারে নিয়ম মেনে।

অন্য পারে দাঁড়িয়ে তা প্রত্যক্ষ করলেন পাত্রীর বাবা-মা ও ঠাকুমা। এই মুহুর্তটা চিরদিনের হয়ে থেকে যাবে বলে মানছেন পাত্রী। এভাবে সীমান্তে দাঁড়িয়ে বিয়ে রীতিমত হৈচৈ ফেলেছে ২ দেশে।

Show More

Leave a Reply

Your email address will not be published.

Back to top button