National

বিয়ের সময় বাজি পুড়িয়ে মহা ফ্যাসাদে পড়লেন বর ও বরের বাবা

বিয়ের আনন্দে নাচ, গান, বাজি পোড়ানো এসব তো লেগেই থাকে। কিন্তু সেই বাজি পোড়ানো বর আর তাঁর বাবার জন্য এক বড় ফ্যাসাদের কারণ হল।

বিয়ে করতে এসেছিলেন বর। সঙ্গে বরযাত্রী। নাচ, গান, আনন্দে মাতোয়ারা বরপক্ষের সকলে। চলছিল চুটিয়ে বাজি পোড়ানো। বিয়েকে কেন্দ্র করে বাজি পোড়ানো নতুন নয়। কিন্তু বরযাত্রীদের এই প্রচুর আতসবাজি পোড়ানো মোটেও ভাল চোখে নেননি কনেপক্ষের মানুষজন।

কনের বাড়িতেই বিয়ে করতে এসেছেন বর। ফলে কিছুটা হলেও দলে ভারী কনেপক্ষই। সদস্য সংখ্যা তাঁদের তরফের বেশি। বরপক্ষের এভাবে লাগাম ছাড়া বাজি পোড়ানো নিয়ে প্রথমে অসন্তোষ প্রকাশ করেন তাঁরা। তারপর কথা কাটাকাটি। অবশেষে তুলকালাম।

বরপক্ষের অভিযোগ কনেপক্ষের কয়েকজন মিলে বর ও বরের বাবাকে বিয়েবাড়ি থেকে তুলে নিয়ে যান। সঙ্গে নিয়ে যান আরও ৩ বরযাত্রীকে।

তাঁদের তুলে নিয়ে গিয়ে একটি পাণ্ডববর্জিত স্থানে রাখা হয়। তারপর শুরু হয় মার। বর, বরের বাবা এবং ৩ জন বরযাত্রীর ওপর শারীরিক নির্যাতন চলতেই থাকে।


কোনওক্রমে তারমধ্যেই বরের বাবা তাঁর ভাইকে ফোন করে দেন। ভাই একথা জেনে পুলিশে ফোন করেন। পুলিশ এসে অবশেষে সকলকে উদ্ধার করে।

১৫ জনের বিরুদ্ধে এফআইআর দায়ের হয়েছে। সামান্য বাজি পোড়ানোকে কেন্দ্র করে যে পুরো বিষয়টি এমন পর্যায়ে পৌঁছতে পারে তা বরপক্ষ আন্দাজ করতে পারেনি। তারা পুলিশের কাছে গয়না চুরির অভিযোগও দায়ের করেছে। ঘটনাটি ঘটেছে বিহারের আরারিয়া জেলার পাচাইলি গ্রামে। — সংবাদ সংস্থার সাহায্য নিয়ে লেখা

Show Full Article

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Back to top button