National

জলের ট্যাঙ্কে মিলল প্রচুর মানুষের পায়খানা, সেই জলই যাচ্ছিল স্থানীয়দের বাড়িতে

অনেক জায়গায় জলের ট্যাঙ্ক থেকে এলাকায় জল সরবরাহ হয়ে থাকে। তেমনই একটি জলের ট্যাঙ্কে ভর্তি মানুষের মল পাওয়া গেল। সেখান থেকেই হচ্ছিল জল সরবরাহ।

অনেক জায়গায় মাটির তলা দিয়ে পাইপ নিয়ে গিয়ে যেমন জল সরবরাহ করা হয়, তেমনই অনেক এলাকায় আবার জলের ট্যাঙ্ক থাকে। সেই উঁচু ট্যাঙ্কে প্রচুর পরিমাণে জল ভরা হয়। সেখান থেকে এলাকায় জল সরবরাহ করা হয়।

এমন জলের ট্যাঙ্ক দেখে এ দেশের মানুষ অভ্যস্ত। সেসব ট্যাঙ্ক মূলত সিমেন্টের তৈরি হয়। নিচ থেকে ট্যাঙ্ক পর্যন্ত পৌঁছনোর জন্য থাকে লোহা বা সিমেন্টের সিঁড়ি। তেমনই একটি সুউচ্চ জলের ট্যাঙ্ক থেকে স্থানীয় দলিত অধ্যুষিত এলাকায় জল সরবরাহ করা হত।


পড়ুন আকর্ষণীয় খবর, ডাউনলোড নীলকণ্ঠ.in অ্যাপ

অভিযোগ, ওই জলের ট্যাঙ্কে প্রচুর পরিমাণে মানুষের মল পাওয়া গিয়েছে। কীভাবে অত উঁচুতে ট্যাঙ্কের মধ্যে মানুষের মল পৌঁছল তা পরিস্কার নয়। কিন্তু ওই ট্যাঙ্ক থেকেই জল সরবরাহ হয়ে এসেছে এতদিন।

ঘটনা জানার পর পুলিশ আসে তদন্তে। দলিত অধ্যুষিত এলাকার মানুষের দাবি পুলিশ তদন্তে এসে তাঁদের ওপর চাপ দিয়েছে। তাঁদের ওই মানুষের মল ফেলার দায় নিজেদের কাঁধে নিতে চাপ দিয়েছে পুলিশ বলে দাবি স্থানীয়দের।

পুরো ঘটনার তদন্ত পুরোদমে চালু হলেও দলিতরা ওই ট্যাঙ্ক অবিলম্বে ভেঙে ফেলার দাবিতে অনড় অবস্থান নিয়েছেন। তামিলনাড়ুর পুডুকোট্টাই জেলার ভেঙ্গাইভায়াল এলাকার এই ঘটনা দেশ জুড়ে রীতিমত হইচই ফেলে দিয়েছে।

ভিদুথালাই চিরথাইগাল কাটচি নামে একটি সংগঠন এই জলের ট্যাঙ্ক দ্রুত ভেঙে দিতে হবে বলে সোচ্চার হয়েছে। — সংবাদ সংস্থার সাহায্য নিয়ে লেখা

Show More

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *