National

মহিলার গায়ে প্রস্রাব করে গেল চাকরি, পুলিশও খুঁজছে

বিমানে এক মহিলার গায়ে প্রস্রাব করে হুলস্থূল ফেলে দিয়েছেন তিনি। তাঁর এই কাজ সামনে আসার পর মোটা মাইনের চাকরি খোয়ালেন ওই ব্যক্তি।

নিউ ইয়র্ক থেকে দিল্লিগামী বিমান তখন আকাশে। মধ্যাহ্ন ভোজনের পর এয়ার ইন্ডিয়ার বিমানের আলো তখন নিভিয়ে দেওয়া হয়েছে। যাত্রীরা একটু বিশ্রামের চেষ্টা করছেন। সেই সময় ১ যাত্রী মদ্যপ অবস্থায় এক ৭০ বছরের মহিলা যাত্রীর সামনে এসে দাঁড়ান।

তারপর হতবাক করে দিয়ে প্যান্টের চেন খুলে ওই মহিলার গায়ে প্রস্রাব করতে শুরু করেন। প্রস্রাবে মহিলার পোশাক থেকে ব্যাগ সবই ভিজে জাপ হয়ে যায়।


পড়ুন আকর্ষণীয় খবর, ডাউনলোড নীলকণ্ঠ.in অ্যাপ

পরে ওই যাত্রী নিজের জায়গায় ফিরে গেলেও মহিলার দাবি তাঁকে বিমান সেবিকারা সেভাবে সাহায্য করেননি। তাঁকে পোশাক বদলের জন্য পোশাক ও একটি চটি পরতে দিলেও তাঁকে প্রস্রাবে ভিজে যাওয়া আসনেই গিয়ে বসতে হয়।

বিমানের পাইলট তাঁকে বিজনেস ক্লাসের সিট ফাঁকা থাকা সত্ত্বেও সেখানে বসতে দেননি। পরে জোর করে তাঁর সামনে ওই ব্যক্তিকে বসানো হয়। ওই ব্যক্তি ক্ষমাও চেয়ে নেন। এরপর দিল্লি গিয়ে বিমানবন্দরে ওই ব্যক্তি কোনও বাধা ছাড়াই বেরিয়েও যান।

ওই ব্যক্তি ছাড়া পাওয়ার পর মহিলা এয়ার ইন্ডিয়ার প্রধানকে চিঠি লেখেন। বিষয়টি নিয়ে তারপরই হইচই শুরু হয়। পুলিশ এখন ওই ব্যক্তিকে পাকড়াও করার চেষ্টা করছে।

এদিকে এরমধ্যেই শঙ্কর মিশ্র নামে মুম্বইয়ের বাসিন্দা ওই ব্যক্তি যে মার্কিন সংস্থায় চাকরি করতেন সেই চাকরি তিনি হারিয়েছেন। ওয়েলস ফারগো নামে মার্কিন ফাইনান্সিয়াল সার্ভিস সংস্থায় কাজ করতেন শঙ্কর মিশ্র। — সংবাদ সংস্থার সাহায্য নিয়ে লেখা

Show More

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *