National

৫ লক্ষ টাকা উদ্ধার করতে নারকেল গাছে উঠে বসে রইলেন এক ব্যক্তি

প্রায় ৫ লক্ষ টাকা উদ্ধার করতে যে কেউ এ রাস্তাও নিতে পারেন তা কল্পনা করতে পারেননি অনেকেই। তবে যা ঘটল তা রীতিমত কাহিনি হয়ে রইল।

একটি নারকেল গাছের মাথায় চড়ে বসে আছেন এক ব্যক্তি। কারও অনুরোধই শুনছেন না। তিনি সাফ জানিয়ে দিয়েছেন তাঁর শর্ত পূরণ না হলে তিনি নিচে নামবেন না। সকলেই তাঁকে নিচে নেমে আসতে অনুরোধ করছেন। কিন্তু তিনি কারও কথাই শুনতে রাজি নন।

একথা শুনে সেখানে হাজির হন পুলিশকর্মীরা। হাজির হন দমকলকর্মীরাও। তাঁরাও ওই ব্যক্তিকে নিচে নেমে আসতে বলেন। কিন্তু পেশায় ঠিকাদার ওই ব্যক্তি সাফ জানিয়ে দেন তিনি যে গাছে চড়ে আছেন তার উল্টো দিকে যে বাড়িটি রয়েছে তা তিনিই তৈরি করে দিয়েছেন।


পড়ুন আকর্ষণীয় খবর, ডাউনলোড নীলকণ্ঠ.in অ্যাপ

ওই বাড়ি তৈরি করার পর এখনও বাড়ির মালিকের কাছে তিনি ৪ লক্ষ ৮০ হাজার টাকা পান। ওই টাকা এখন আর বাড়ির মালিক দিতে রাজি হচ্ছেন না।

গাছে চড়া ঠিকাদারের দাবি ওই টাকা যতক্ষণ না ওই বাড়ির মালিক তাঁকে ফেরত দিচ্ছেন ততক্ষণ তিনি গাছ থেকে নামবেন না। এও জানিয়ে দেন ওই টাকা তাঁর ব্যাঙ্ক অ্যাকাউন্টে ফেলতে হবে।

টাকা পড়লে ব্যাঙ্ক থেকে তাঁর কাছে এসএমএস আসবে। তবেই তিনি গাছ থেকে নামবেন। তিনি যে অন্যায্য কিছু চাইছেন না তার প্রমাণ স্বরূপ তিনি কাগজপত্রও হোয়াটসঅ্যাপে ছড়িয়ে দিতে থাকেন।

এমন করে ঘড়ির কাঁটা ঘুরতে থাকে। গাছের চারধার জুড়ে জালও পেতে ফেলা হয়। যাতে ওই ব্যক্তি লাফ দিলে জালে এসে পড়েন।

কিছুতেই তাঁকে নেমে আসতে রাজি না করা যাওয়ার পর ব্যবস্থা করে তাঁর প্রাপ্য টাকার একটা অংশ নোটের বান্ডিল আকারে দেখানো হয়। তাঁকে আশ্বাসও দেওয়া হয় এবার তিনি নেমে এলে তাঁকে তাঁর প্রাপ্য থেকে বঞ্চিত করা হবে না।

নোটের বান্ডিল দেখার পর নিশ্চিন্ত হন ওই ব্যক্তি। তাঁকে তাঁর সম্মতি নিয়েই গাছ থেকে নিচে নামিয়ে আনেন দমকলকর্মীরা। ঘটনাটি ঘটেছে কেরালার তিরুবনন্তপুরমের কাছে পাল্লিওদু গ্রামে। — সংবাদ সংস্থার সাহায্য নিয়ে লেখা

Show More

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *