National

৯ মাসের শিশুর জন্য ১৮ কোটি টাকা চাঁদা তুললেন গ্রামবাসীরা

তাঁদের গ্রামের এক ৯ মাসের শিশুর জন্য মাত্র একটি গ্রামের মানুষজন মিলে তুলে ফেললেন ১৮ কোটি টাকা! গ্রামবাসীদের এই পাশে থাকায় আপ্লুত বাবা মা।

শিশুটি জন্মের পর ৩ মাস ঠিকই ছিল। ৩ মাস বয়স হওয়ার পর থেকে দেখা যায় তার মায়ের বুকের দুধ খেতে অসুবিধা হচ্ছে। চিন্তায় পড়ে যান বাবা মা। সন্তান তাহলে খাবে কি! কিন্তু তাঁদের সন্তান কিছুতেই তার মাথা তুলতে পারেনা। ধরে রাখতে পারেনা নিজের মাথার ভার।

এই অবস্থায় শিশুকে নিয়ে হাসপাতালে ছোটেন তাঁরা। চিকিৎসকেরা শিশুটিকে পরীক্ষার পর জানান, শিশুটি স্পাইনাল মাসকিউলার এট্রোফি নামে এক বিরলতম অসুখের শিকার।

কেরালার কোঝিকোড়ের চোরোড়ে গ্রামের বাসিন্দা সিয়াদ ও ফাজিলা তাঁদের শিশু সন্তান সিয়াকে নিয়ে ছোটেন বেঙ্গালুরুতে। সেখানেও কিন্তু চিকিৎসকেরা একই কথা জানান।

চিকিৎসকেরা এও জানান যে এই রোগের চিকিৎসার জন্য যে ওষুধটি লাগে তা আমেরিকা থেকে আনাতে হবে। দাম পড়বে ১৮ কোটি টাকা। যে ওষুধ আসলে এক ধরনের জিন থেরাপি মেডিসিন। যার একটি ডোজ এই রোগ ভাল করে দিতে সক্ষম।


১৮ কোটি টাকা শুনে কার্যত সব আশা ছেড়ে দেন দম্পতি। গ্রামে এসে যখন তাঁরা সেকথা জানান তখন গ্রামবাসীরা তাঁদের পাশে এসে দাঁড়ান। তাঁরা স্থির করেন এই টাকা তাঁরাই জোগাড় করবেন।

সেইমত চোরোড়ে গ্রামের পঞ্চায়েত প্রধান নিজে আহ্বায়ক হয়ে একটি বিরাট বৈঠক ডাকেন। ফান্ড কালেকশনের জন্য সকলকে এগিয়ে আসতে বলা হয়।

এগিয়ে আসতে পিছপা হননি কেউ। যে যত টাকা পেরেছেন দান করেছেন ফান্ডে। আর তা থেকে ১৮ কোটি টাকা জোগাড়ও হয়েছে। এখন ওষুধ এলেই সুস্থ হয়ে উঠবে ছোট্ট সিয়া। — সংবাদ সংস্থার সাহায্য নিয়ে লেখা

Show Full Article

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Back to top button