National

মেয়েকে একটি আশ্রমে সম্মোহিত করে আটকে রাখার অভিযোগ করলেন বাবা মা

একটি আশ্রমে তাঁদের তরুণী মেয়েকে আটকে রাখা হয়েছে। তাঁদের মেয়েকে সম্মোহিত করেছেন ওই আশ্রমের প্রধান। এমনই দাবি করলেন এক দম্পতি।

বেঙ্গালুরুতে পড়া শেষ করে ফেরার পর ওই আশ্রমে গিয়েছিলেন তাঁদের মেয়ে। তাঁদের সঙ্গেই গিয়েছিলেন। কিন্তু ওই তরুণীকে দেখার পর আশ্রমের প্রধান বা মহামণ্ডলেশ্বর তাঁকে কোনওভাবে সম্মোহিত করতে সমর্থ হন। সেই থেকেই তাঁদের মেয়েকে ওই সন্ত ও তাঁর অনুগামীরা আটক করে রেখেছেন আশ্রমে। সম্মোহন বলে তরুণীকে আটকে রাখা হয়েছে। এমনই এক অভিযোগ সামনে আনলেন এক দম্পতি।

ওই দম্পতি জানিয়েছেন, তাঁরা ধার্মিক মানুষ। হরিদ্বারের ওই আশ্রমে তাঁদের অনেক দিনের যাতায়াত। প্রায় ৬ বছর ধরে সেখানে যাচ্ছেন তাঁরা। মেয়ে বেঙ্গালুরু থেকে পড়াশোনা শেষ করে ফেরার পর মেয়েকেও নিয়ে গিয়েছিলেন ওই আশ্রমে।

ব্যবসায়ীর অভিযোগ ২ বছর ধরে তাঁদের মেয়েকে আশ্রমে আটকে রাখা হয়েছে। যখনই তাঁরা আশ্রমে যান তাঁদের মেয়ের সঙ্গে দেখা করতে দেওয়া হয়না। জোর করলে ফল ভাল হবে না বলে জানানো হয়। এবার মেয়েকে ফিরে পেতে মরিয়া হয়ে উঠেছেন ওই দম্পতি।

তাঁরা বুঝতেই পারছেন না তাঁদের মেয়ে ওখানে কি অবস্থায় রয়েছেন। বিষয়টি নিয়ে মহিলা কমিশনের দ্বারস্থ হয়েছেন তাঁরা। মহিলা কমিশনের তরফে সব শোনার পর উপযুক্ত ব্যবস্থা গ্রহণের আশ্বাস দেওয়া হয়েছে।

কমিশনের তরফে পুলিশকেও বলা হয়েছে বিষয়টি তদন্ত করে দেখতে। উত্তরাখণ্ডের হরিদ্বারের তীর্থস্থানে এক আশ্রমের এভাবে এক তরুণীকে আটকে রাখার ঘটনা প্রকাশ্যে আসার পর যথেষ্ট শোরগোল পড়েছে। — সংবাদ সংস্থার সাহায্য নিয়ে লেখা

Show More

Leave a Reply

Your email address will not be published.