National

জ্বালানির খরচ থেকে বাঁচার উপায়ের হদিশ দিলেন বিদ্যাসাগর

তেলের দাম হুহু করে বাড়ছে। যার আঁচে প্রত্যক্ষ বা পরোক্ষভাবে ছেঁকা খাচ্ছেন গোটা দেশের মানুষ। এ থেকে বাঁচার অভিনব উপায়ের হদিশ দিলেন বিদ্যাসাগর।

পেট্রোল, ডিজেল থেকে রান্নার গ্যাস। ক্রমশ চড়তে থাকা দাম সকলের মাথায় হাত ফেলেছে। যাঁদের গাড়ি আছে তাঁরা অনেকেই তা আপাতত গ্যারেজে ফেলে রাখার পক্ষপাতী। পরোক্ষে আবার তেলের দাম বাড়ায় পরিবহণ খরচ বাড়ছে। আর তার হাত ধরে হুহু করে বাড়ছে জিনিসপত্রের দাম।

এই অবস্থায় নিজের বাইকের তেলের খরচ আর বহন করতে পারছিলেননা কুরাপতি বিদ্যাসাগর। তেলেঙ্গানার বাসিন্দা ৪২ বছরের কুরাপতি তাই এবার অন্য রাস্তায় হাঁটলেন।

পেশায় তিনি একজন টিভি মেকানিক। তিনি তাঁর বাইক থেকে খুলে ফেলেছেন ইঞ্জিনটাই। সেটিকে খুলে তাঁর ১৫ বছরের পুরনো বাইকে লাগিয়ে দিয়েছেন একটি ব্যাটারি। সঙ্গে লাগিয়েছেন একটি কনভার্টার ও একটি মোটর।

যা দিয়ে বিদ্যাসাগর তাঁর বাইকটিকে পেট্রোল চালিত বাইকের জায়গায় বানিয়ে ফেলেছেন ব্যাটারি চালিত বাইক। আর তাতেই দিব্যি ঘুরে বেড়াচ্ছেন তিনি।


National News
ব্যাটারি বাইক সহ বিদ্যাসাগর, ছবি – আইএএনএস

বিদ্যাসাগরের এই অভিনব উদ্যোগে তেলের খরচ বাঁচছে। আর ব্যাটারি হওয়ায় তার খরচও অনেক কম হচ্ছে। সব মিলিয়ে ২০ হাজার টাকার মত খরচ হয়েছে বিদ্যাসাগরের।

তেলের ট্যাঙ্কটা খুলে সেখানে ব্যাটারি, কনভার্টার ও মোটর লাগাতে বিদ্যাসাগরকে সাহায্য করেন এক মোটর মেকানিক। তিনি জানিয়েছেন, আগে প্রতিদিন তাঁর ১ থেকে দেড় লিটার পেট্রোল খরচ হত। এখন সেই একই দূরত্ব অতিক্রম করতে খরচ অনেক কমে গেছে।

বিদ্যাসাগরের এই অভিনব ভাবনা আশপাশের অনেককে অনুপ্রাণিত করেছে। তাঁকে এসে বাইককে ব্যাটারি চালিত করার উপায় জিজ্ঞাসাও শুরু করেছেন অনেকে। — সংবাদ সংস্থার সাহায্য নিয়ে লেখা

Show Full Article
Back to top button