National

বন্ধ ব্যাঙ্কে ৩ রাত্রি আটকে মহিলা, বার হতেই গ্রেফতার

ব্যাঙ্ক বন্ধ ছিল ২ দিন। ৩ রাত্রি ব্যাঙ্কের মধ্যেই তালাবন্ধ অবস্থায় কাটালেন এক মহিলা। তারপর দরজা খুলতেই গ্রেফতার করা হল তাঁকে।

যথেষ্ট পানীয় জল ব্যাঙ্কে ছিলনা যাতে একজন ২৪ ঘণ্টাও কাটাতে পারেন। দরজা বন্ধ করে দিলে ব্যাঙ্কের মধ্যেটা বন্ধ। তারমধ্যে রাতদিন একা আটকে ছিলেন এক মহিলা।

শুক্রবার ব্যাঙ্ক বন্ধ হওয়ার সময় থেকে সোমবার সকালে ব্যাঙ্ক খোলা পর্যন্ত এই অবস্থাতেই কাটান তিনি। সোমবার তাঁকে যখন পাওয়া যায় তখন তাঁর শারীরিক অবস্থা যথেষ্ট খারাপ। শরীরে প্রায় শক্তি নেই।

ওই অবস্থায় উদ্ধার হলেও পুলিশ তাঁকে রেহাই দেয়নি। গ্রেফতার করা হয় ওই মহিলাকে। আশপাশের লোকজন তাঁর উপযুক্ত শাস্তিও দাবি করেছেন। এমনকি মহিলার পরিবারের লোকজনও জানিয়ে দিয়েছেন তাঁর এমন কাজ তাঁরা মেনে নিতে পারছেন না।

আপাত দৃষ্টিতে এক মহিলা ব্যাঙ্কে আটকে পড়ে ৩ রাত সেখানে কাটাতে বাধ্য হয়েছেন বলে মনে হলেও পুলিশ কিন্তু অন্য সন্দেহ করছে। যার যথেষ্ট কারণও রয়েছে।


পুলিশ মনে করছে, ওই মহিলা আসলে ব্যাঙ্কে ডাকাতি করার অভিপ্রায় নিয়ে গত শুক্রবার ইচ্ছা করেই ব্যাঙ্ক বন্ধ হওয়ার সময় ব্যাঙ্কের একটি ঘরে নিজেকে লুকিয়ে রাখেন। তারপর ব্যাঙ্কে বাইরে থেকে তালা পড়ার পর বেরিয়ে আসেন।

তাঁর হয়তো এটা জানা ছিলনা যে শনিবার ব্যাঙ্ক বন্ধ থাকবে। তিনি হয়তো শনিবার ব্যাঙ্ক খুললে বেরিয়ে আসার পরিকল্পনা মাথায় রেখেছিলেন। ফলে ওই একটা রাত কাটানোর জন্য সঙ্গে রেখেছিলেন মুড়ি ও ওআরএস। এছাড়া কিছু নরম পানীয়ের বোতলও তাঁর ব্যাগে ছিল।

ইসাবেলা মারবো নামে ওই ৪০ বছর বয়স্ক মহিলার সঙ্গে ছিল হাতুড়ি ও করাত। পুলিশের ধারণা ব্যাঙ্ক বন্ধ করে সকলে চলে গেলে রাতভর ধীরে সুস্থে তিনি এগুলি কাজে লাগিয়ে লুঠ চালানোর কথা ভেবেছিলেন।

পুলিশ এও জানিয়েছে যে ব্যাঙ্কের সিসিটিভি-র কয়েকটির ক্ষতি করেছেন ওই মহিলা। তাই ব্যাঙ্ক ডাকাতির অভিপ্রায় নিয়ে ব্যাঙ্কে লুকিয়ে থাকার অভিযোগে তাঁকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। ঘটনাটি ঘটেছে মেঘালয়ের শিলংয়ে মেঘালয় রুরাল ব্যাঙ্কের বিষ্ণুপুর শাখায়। — সংবাদ সংস্থার সাহায্য নিয়ে লেখা

Show Full Article
Back to top button