National

সোশ্যাল মিডিয়ায় বিদেশিনী সেজে আড়াই কোটি টাকা হাতিয়ে নিল ঠগ

সোশ্যাল মিডিয়াকে কাজে লাগিয়ে প্রতারণার জাল বোনা নতুন ঘটনা নয়। এবার সেই জালেই ধরা দিলেন এক মহিলা। আড়াই কোটি টাকা হাতিয়ে নিল ঠগ।

সোশ্যাল মিডিয়াতেই আলাপ ২ জনের। এক মহিলা সোশ্যাল মিডিয়ায় বিদেশিনীর সঙ্গেই আলাপ জমিয়েছিলেন। আলাপ জমে ওঠে। বন্ধুত্বটাও প্রগাঢ় হয়। তখনই একদিন রেবেকা ক্রিস্টিন নামে ওই বিদেশিনী তাঁকে জানায় তার ক্যানসার হয়েছে। সে বেশিদিন বাঁচবে না।

এদিকে তার আত্মীয় পরিজন বলেও কেউ নেই। তাই তার পুরো সম্পত্তি সে তার সোশ্যাল মিডিয়ার মহিলা বন্ধুটিকে দিয়ে যেতে চায়। ২৮ কোটি টাকার সম্পত্তি হস্তান্তরের জন্য সে তার আইনজীবী ও ভারতে তার প্রতিনিধিকে পাঠাবে।

এর কয়েকদিন পরেই ওই মহিলার কাছে একটি ই-মেল আসে। ফরেন এক্সচেঞ্জ ডিপার্টমেন্ট থেকে এসেছে সেই ই-মেল বলে দেখেন মহিলা।

এবার শুরু হয় নানা ছুতোয় ওই মহিলার কাছে টাকা নেওয়া। কখনও দেখানো হয় এই সম্পত্তি হস্তান্তরের জন্য ফি লাগবে। কখনও আইনজীবীকে দিতে হবে বলে টাকা চাওয়া হয়। এসব টাকার অঙ্কও ছিল বিশাল বিশাল।


ওই মহিলা টাকা দিয়েও যেতে থাকেন। সেই অন্ধবিশ্বাস তাঁর ভাঙে যখন তাঁর অ্যাকাউন্ট থেকে আড়াই কোটি টাকা তিনি দিয়ে বসে আছেন। বুঝতে পারেন কী ভুলটাই না তিনি করে ফেলেছেন। দ্রুত পুলিশে খবর দেন তিনি।

রাজস্থানের ওই মহিলার অভিযোগ পেয়ে তদন্তে নামে পুলিশ। তারপর তদন্ত করে বিহারের বাসিন্দা নীরজ সুরি নামে এক ব্যক্তিকে দেরাদুন থেকে গ্রেফতার করে।

পুলিশ জানাচ্ছে নীরজই ফেসবুকে রেবেকা ক্রিস্টিন সেজে ওই মহিলার আড়াই কোটি টাকা হাতিয়ে নেয়। তদন্তে নেমে পুলিশ এও জানতে পারে নীরজের দিল্লি, দেরাদুন সহ মোট ৬টি অফিস রয়েছে। যেখানে সে বিদেশি নাগরিকদের সঙ্গে জালিয়াতির কারবার করে। — সংবাদ সংস্থার সাহায্য নিয়ে লেখা

Show Full Article
Back to top button