National

মেট্রোর কামরায় বাঁদরের সফর, লাফিয়ে বসল যাত্রীর পাশে

মেট্রোয় সকলে চড়ছে। তাই তারও হয়তো সাধ হয়েছিল মেট্রোয় ঘোরার। কিন্তু ওঠার পর সকলের দেখাদেখি সিটেও বসল। তবে খুব আনন্দের বোধহয় হল না সফর।

মেট্রোর কামরা ফাঁকাই যাচ্ছে। যাঁরা বসে ছিলেন তাঁদের দেখাদেখি তারও ইচ্ছা হয়েছিল মেট্রোয় সফর করার। টিকিটের তো প্রয়োজন নেই। চড়ে গেলেই হল।

মেট্রোয় চড়ার পর মেট্রোর দরজা বন্ধ হল। মেট্রো চলতে শুরু করল। যাত্রীরা সিটে বসেছিলেন। বাঁদর বাবাজি বসেছিল চলন পথে।

কিন্তু মেট্রো চলতে শুরু করলে ভয়েই হোক বা অন্যদের দেখেই হোক বাঁদর এক লাফ দিয়ে চড়ে বসল এক যাত্রীর পাশের ফাঁকা সিটে। করোনার সময় ওই সিটে বসা মানা। কিন্তু বাঁদরের জন্য অবশ্যই সে নিয়ম খাটে না।

যাত্রীর পাশে বসে সে একটা হাত রাখল যাত্রীর কোমরের কাছে। একটু অবাক হয়েই চারপাশ দেখতে লাগল। কোনও বাঁদরামির রাস্তায় না গিয়ে বরং ওই যাত্রীর একটু গা ঘেঁষেই বসল। ট্রেন চলতে শুরু করার পর কি তাহলে ভয় একটু হলেও পেল সে? হতে পারে। আবার নাও হতে পারে।


তবে এক সময় জানালা দিয়ে উঁকি দিয়ে ফের বসে পড়ে সে। আবার সাহস করে উঠে চলমান ট্রেন থেকে বাইরেটা দেখে। এই ছিল পুরো ভিডিও। যা এখন ভাইরাল।

দাবি করা হচ্ছে এটি দিল্লির ব্লু লাইনের ঘটনা। যমুনা ব্যাঙ্ক স্টেশনের কাছে ঘটে এই বাঁদরের সফর। যদিও দিল্লি মেট্রো কর্তৃপক্ষ এই বাঁদরের সফর নিয়ে কোনও নিশ্চয়তা দেয়নি।

বরং মেট্রো কর্তৃপক্ষ কোন কামরায় ঘটেছে তার বিস্তারিত তথ্য দিতে অনুরোধ করেছে যিনি ওই ভিডিও আপলোড করেছেন তাঁকে। — সংবাদ সংস্থার সাহায্য নিয়ে লেখা

Show Full Article
Back to top button