National

স্ত্রীর ওপর আছড়ে পড়ল রকেট, লাইভ দেখলেন স্বামী

স্বামীর চোখের সামনে স্ত্রীর ওপর আছড়ে পড়ল রকেট। শত ক্রোশ দূরে থাকলেও তিনি তখন স্ত্রীর সঙ্গে ভিডিও কলে ছিলেন। সবটাই ঘটল লাইভ।

সুখদুঃখের ব্যক্তিগত কথা হোক বা সাংসারিক কথাবার্তা। স্বামী-স্ত্রীর কথার একমাত্র মাধ্যম ছিল ভিডিও কল। ২ জনের দেখা হওয়ার উপায়ও ছিল সেটাই।

সেভাবেই গত মঙ্গলবার কথা হচ্ছিল স্ত্রীর সঙ্গে। স্ত্রী থাকেন ইজরায়েলের আশকেলন শহরে। সেখানেই এক বৃদ্ধার দেখভালের দায়িত্ব সামলান তিনি।

৪ বছর আগে শেষবার ভারতে এসেছিলেন বাড়িতে। স্বামীর সঙ্গে সামনাসামনি সেই শেষ দেখা। তারপর ভিডিও কলেই তাঁদের দাম্পত্য জীবন কেটেছে। গত মঙ্গলবার স্বামী সন্তোষের সঙ্গে ভিডিও কলে কথা বলছিলেন ৩১ বছরের সৌম্যা সন্তোষ।

ইজরায়েল ও গাজার মধ্যে শুরু হয়েছে ভয়ংকর লড়াই। একে অপরের দিকে রকেট হানা চালাচ্ছে। তাতে ২ দিকেই মৃত্যু হচ্ছে বহু সাধারণ মানুষের।


আশকেলন শহরও খুব সুরক্ষিত নয়। সে কথাই হচ্ছিল। কেরালার অনেক নার্স ইজরায়েলে বৃদ্ধ বৃদ্ধাদের দেখাশোনার দায়িত্ব সামলান।

যে বৃদ্ধার সৌম্যা দেখাশোনা করতেন সেই বৃদ্ধা ও সৌম্যাকে বৃদ্ধার ছেলে ওই বাড়ি থেকে নিতে আসছিলেন। একটি অপেক্ষাকৃত সুরক্ষিত জায়গায় নিয়ে যাওয়ার জন্য।

তার আগে সব গুছিয়ে স্বামীর সঙ্গে ভিডিও কলে কথা হচ্ছিল সৌম্যার। এমন সময় সন্তোষ দেখেন একটা কিছু পড়ল। আর স্ত্রী ভিডিও কল থেকে উধাও হয়ে গেলেন। কিন্তু ভিডিও কল চালু রইল।

ভিডিও কলে তিনি শুনতে পেলেন কিছু মানুষ আর্ত চিৎকার করছেন। স্ত্রীকে বার বার ডেকেও ফল হয়নি। অবশেষে তাঁকে জানানো হয় তাঁর স্ত্রী আর নেই। তখনই হওয়া রকেট হানায় তাঁর মৃত্যু হয়েছে।

সন্তোষ বুঝতে পারেন কিছু একটা আছড়ে পড়ার পর স্ত্রী কেন ভিডিও থেকে উধাও হয়ে গিয়েছিলেন। কেন্দ্রীয় সরকারের তরফে সৌম্যার দেহ দেশে ফেরানোর উদ্যোগ শুরু হয়েছে। — সংবাদ সংস্থার সাহায্য নিয়ে লেখা

Show Full Article
Back to top button