National

আনন্দে আত্মহারা হয়ে হৃদরোগে আক্রান্ত চোর

আনন্দে আত্মহারা হলে যেমন খুশিতে মন ভরে, তেমন হৃদরোগেও আক্রান্ত হতে পারেন কেউ। এমনই ঘটেছে এক চোরের সঙ্গে। আনন্দে আত্মহারা চোর আচমকাই হৃদরোগে আক্রান্ত হয়।

বিজনৌর (উত্তরপ্রদেশ) : একটা গল্প মুখে মুখে ঘোরে। একটা ঘোড়াকে তার মালিক প্রতিদিন ঘাসপাতা খাওয়াত। প্রতিদিন ঘাস চিবোতে চিবোতে ঘোড়ার হাড়পাঁজরা বার হওয়ার জোগাড়। এমন সময় একদিন অপ্রত্যাশিতভাবেই এক বালতি ছোলা তার সামনে এল।


পড়ুন আকর্ষণীয় খবর, ডাউনলোড নীলকণ্ঠ.in অ্যাপ

ঘোড়া তো তা দেখে একেবারে আত্মহারা। কত যুগ পরে ছোলা খাওয়ার সুযোগ হল। তাও আবার এত। ঘোড়া খাবে কি! আনন্দে এতটাই আপ্লুত হয়ে পড়ল যে সে নাকি হাসতে হাসতে মারা গেল।

অনেক সময় নীতি কথা শোনানোর জন্য এ গল্প বলে থাকেন অনেকে। কিন্তু এই কাহিনির ছায়া যে বাস্তব জীবনে এমন চরম সত্যি হয়ে সামনে আসবে তা বোধহয় কারও জানা ছিলনা।

উত্তরপ্রদেশের বিজনৌর-এ গত ফেব্রুয়ারি মাসে একটি চুরির ঘটনা ঘটে। একটি জনসেবা কেন্দ্র থেকে মধ্যরাতে ২ চোর টাকা চুরি করে। সেই টাকা তারা চুরি করে নিয়ে আসে তাদের ডেরায়।

তারপর ২ চোর স্থির করে ওই টাকা তারা আধাআধি ভাগাভাগি করে নেবে। কিন্তু চুরি করে আনা টাকার বখরা করতে গিয়ে চোরেদের চোখ কপালে ওঠে। এত টাকা একসঙ্গে জীবনে কখনও দেখেনি তারা।

টাকার পরিমাণ ছিল ৭ লক্ষ। তার অর্ধেক তার ভাগে পড়বে ভেবেই আনন্দে ফেটে পড়ে এক চোর। আর এতই আনন্দ হয় যে অত আনন্দ তার শরীর সইতে পারেনি। ওখানেই আনন্দে হৃদরোগে আক্রান্ত হয় সে।

দ্রুত হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয় তাকে। সেখানে ৩০ বছরের ওই যুবককে বাঁচানো সম্ভব হলেও তার এই হার্ট অ্যাটাক কিন্তু তার শরীরে বড় ধাক্কার কারণ হয়। চিকিৎসা করাতে গিয়ে তার ভাগের টাকাও প্রায় নিঃশেষ হয়ে যায়।

ঘটনাটির সূত্রপাত ফেব্রুয়ারির ১৬ তারিখ মধ্যরাতে। নৌসাদ আর এজাজ নামের ২ চোর কোতোয়ালি দেহাত অঞ্চলের একটি জনসেবা কেন্দ্র থেকে টাকা চুরি করে।

ওই জনসেবা কেন্দ্রটির মালিক নবাব হায়দর প্রায় ৭ লক্ষ টাকা চুরি যাওয়ার অভিযোগ করেন থানায়। মালিকের অভিযোগের ভিত্তিতে তদন্ত শুরু করে পুলিশ।

সম্প্রতি এই চুরির কিনারা করা গেছে বলে পুলিশ কর্তৃপক্ষের তরফে দাবি করা হয়েছে। নৌসাদ ও এজাজ নামের ২ যুবককে এই কাণ্ডের সাথে যুক্ত বলে জানিয়েছেন বিজনৌর-এর সুপারিন্টেনডেন্ট অফ পুলিশ ধরমবীর সিং।

২ জনেরই বয়স ৩০-এর কোঠায়। তাদের গ্রেফতার করা হয় নাগিনা থানা অঞ্চল থেকে। জিজ্ঞাসাবাদ চলাকালীন চুরির বিষয়টি স্বীকার করে নেয় তারা। জিজ্ঞাসাবাদের সূত্রেই প্রকাশ পায় হার্ট অ্যাটাকের বিষয়টিও। — সংবাদ সংস্থার সাহায্য নিয়ে লেখা

Show Full Article
Back to top button