National

২টি বিয়ের প্রস্তাব পেলেন প্রশাসনের দ্বারস্থ হওয়া ২ ফুটের যুবক

বিয়ে করতে চান। তাই পাত্রী খুঁজে দিতে প্রশাসনের দ্বারস্থ হয়েছিলেন তিনি। অবশেষে তাঁর বিয়ের মরিয়া লড়াইয়ে ফল মিলল। প্রস্তাব এল পাত্রীদের তরফ থেকে।

শামলি (উত্তরপ্রদেশ) : কথায় বলে চেষ্টা যদি নিখাদ হয়, আর সে চেষ্টা যদি লক্ষ্যে পৌঁছনো পর্যন্ত চলতে থাকে তবে ফল একদিন লাভ হবেই। তেমনই এক উদাহরণ তৈরি হল।

কয়েক বছর ধরে নিজের জন্য পাত্রী খুঁজে বেড়াচ্ছেন ২৬ বছরর যুবক আজিম মনসুরি। কিন্তু কোনও পাত্রীই তাঁকে হ্যাঁ করছিলেন না। অগত্যা পাত্রী পেতে অন্য রাস্তা নেন আজিম।

প্রশাসনকে চিঠি দিয়ে মনসুরি জানান, বিয়ে করতে চান তিনি। যত দ্রুত সম্ভব। কিন্তু অনেক চেষ্টা করেও পাত্রী জুটছে না। কোনও মেয়েই তাঁকে বিয়ে করতে রাজি হচ্ছেন না।

এমনটা নয় যে তাঁর আর্থিক অবস্থা খারাপ। প্রসাধনীর দোকান থেকে মাসের শেষে ভালই উপার্জন হয়। কোনও বদভ্যাসও নেই। এসব সত্ত্বেও পাত্রীরা তাঁকে দেখলেই না করে দিচ্ছেন।

তাই প্রশাসনই যেন তাঁর জন্য পাত্রী খুঁজে দেয়। বিয়ের পাত্রী পেতে সোজা পুলিশ স্টেশনেও হাজির হন ২৬ বছর বয়সী পাত্র।

উত্তরপ্রদেশের মুজফ্ফরনগরের বাসিন্দা আজিম মনসুরি বিয়ে করতে চেয়ে পুলিশের সহযোগিতায় চিঠি পাঠান মহকুমা শাসকের কাছেও। এমনকি বিয়ের অদম্য ইচ্ছাকে বাস্তবায়িত করতে মুখ্যমন্ত্রী যোগী আদিত্যনাথকেও সমস্যা জানিয়ে চিঠি পাঠান আজিম।

তাঁর এই বিয়ের মরিয়া চেষ্টার কথা উঠে আসে সংবাদমাধ্যমেও। অবশেষে সব জেনে ২ পাত্রী তাঁকে বিয়ের প্রস্তাব দিয়েছেন।

এতদিন ধরে কত পাত্রীকেই না তিনি এগিয়ে দিয়ে বিয়ের প্রস্তাব দিয়েছিলেন। কিন্তু সব নাকচ হয়েছিল। আর এখন তাঁর কাছেই কিনা প্রস্তাব নিয়ে হাজির ২ মহিলা।

একজন গাজিয়াবাদ থেকে আজিমকে বিয়ের প্রস্তাব দিয়েছেন। অন্য এক মহিলা দিল্লির বাসিন্দা। তিনি মনসুরিকে হোয়াটসঅ্যাপে জানিয়েছেন তিনিও একা। তাই তিনি মনসুরিকে বিয়ে করতে ইচ্ছুক। যা দেখে কার্যতই আপ্লুত আজিম মনসুরি। এবার তাহলে তাঁর জীবনেও বিয়ের ফুল ফুটবে বলেই মনে করছেন তিনি।

২৬ বছরের এক যুবকের তাহলে এতদিন পাত্রী জুটছিল না কেন? এ প্রশ্নের উত্তর লুকিয়ে আছে তাঁর উচ্চতায়। সব থেকেও আজিমের সমস্যা তাঁর উচ্চতা। মাত্র ২ ফুট উচ্চতার স্বামী মেনে নিতে পারছিলেন না কোনও মেয়েই। ফলে পত্রপাঠ তাঁরা না করে দিচ্ছিলেন।

আর এতেই মনের দুঃখ ক্রমশ বাড়ছিল আজিমের। তাহলে কী তাঁর আর বিয়ে হবে না? অগত্যা মরিয়া হয়ে প্রশাসন থেকে মুখ্যমন্ত্রী, সকলের কাছে একটা পাত্রী খুঁজে দেওয়ার আবেদন নিয়ে হাজির হয়েছিলেন আজিম।

প্রশাসনও পড়ে মুশকিলে। মাত্র ২ ফুটের আজিমকে কেউই নিজের জীবনসঙ্গী বানাতে রাজি নন। এতে প্রশাসনই বা কি করতে পারে!

আজিমের এই বিয়ের মরণপণ লড়াই অবশেষে হয়তো তাঁর ইচ্ছা পূরণ করতে চলেছে। অনেকেই মনে করছেন ২ জন মহিলা প্রস্তাব দিয়েছেন। আরও হয়তো প্রস্তাব পেতেই পারেন আজিম। এখন আজিম কাকে বিয়ে করেন সেদিকেই তাকিয়ে সকলে। — সংবাদ সংস্থার সাহায্য নিয়ে লেখা

Show More

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Back to top button