National

মুখ্যমন্ত্রীর লকডাউন ইঙ্গিতে আরব পারের রাজ্যে চিন্তার ভাঁজ

করোনায় দেশের মধ্যে সবচেয়ে বেশি যে রাজ্য বিধ্বস্ত, সেই আরব পারের রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী উদ্ধব ঠাকরের একটি ইঙ্গিতে এখন চিন্তা বাড়ছে গোটা রাজ্যবাসীর।

মুম্বই : করোনা পুরো দেশেই থাবা বসিয়েছে। গত বছর এ সময় গোটা দেশেই লকডাউন চলছিল। তারপর আনলক পর্ব শেষ করে যখন সবকিছু স্বাভাবিকের পথে তখনই ফের হুহু করে বাড়তে শুরু করেছে করোনা। ভারতের অনেক জেলায় আছড়ে পড়েছে করোনার দ্বিতীয় ঢেউ। এই দ্বিতীয় ঢেউয়ের ধাক্কা যদি সবচেয়ে বেশি কোথাও পড়ে থাকে তবে তা মহারাষ্ট্রে।

আরবসাগরের ধার ধরে থাকা এই রাজ্যে করোনা শুরু থেকেই দাপটে ব্যাটিং করছে। এদিন যখন করোনায় সারা দেশে ৬৮ হাজার সংক্রমিতের খোঁজ মিলেছে কেবল ১ দিনে, সেখানে এক মহারাষ্ট্রেই সংক্রমিত হয়েছেন ৪৪ হাজারের ওপর মানুষ। বাকিটা গোটা দেশ জুড়ে সংক্রমিতের সংখ্যা। তার মানে গোটা দেশ মিলিয়ে যত মানুষ গত একদিনে সংক্রমিত হয়েছেন তা মিলিয়েও মহারাষ্ট্রের ধারে কাছে সংখ্যাটা নয়।

মহারাষ্ট্রের মুখ্যমন্ত্রী উদ্ধব ঠাকরে বারবার সকলকে করোনা বিধি পালনের অনুরোধ করে এসেছেন। কিন্তু মহারাষ্ট্রেও অনেক মানুষের মধ্যে করোনা বিধি পালনে ঢিলেঢালা মনোভাব সামনে এসেছে। অনেকেই মুখে মাস্কটুকু দিচ্ছেন না। এরমধ্যেই মহারাষ্ট্রে গত সপ্তাহ থেকে চালু হয়েছে নাইট কার্ফু।

এদিন কিন্তু সেখানেই থেমে থাকলেন না মুখ্যমন্ত্রী উদ্ধব ঠাকরে। এদিন তিনি স্পষ্ট করে দিয়েছেন তাঁর রাজ্যের মানুষ যদি এভাবেই করোনা বিধির তোয়াক্কা না করে জীবন কাটাতে থাকেন তাহলে লকডাউন আসন্ন। ফের লকডাউনের জন্য রাজ্যবাসীকে প্রস্তুত থাকার কথাও জানিয়ে দিয়েছেন তিনি। উচ্চপদস্থ আধিকারিকদের লকডাউন পরিকল্পনাও স্থির করার নির্দেশ দিয়েছেন উদ্ধব ঠাকরে।

মুখ্যমন্ত্রীর এই বক্তব্যে বুক কাঁপছে মহারাষ্ট্রবাসীর। গত বছরের লকডাউন তাঁদের স্মৃতিতে তাজা। সেই অবস্থা আবার চাইছেন না কেউই। কিন্তু মহারাষ্ট্রে যেভাবে লাফিয়ে লাফিয়ে বাড়ছে সংক্রমণ তাতে ফের লকডাউন হতেই পারে বলে মেনে নিচ্ছেন সেখানকার মানুষজন।

ইতিমধ্যেই মহারাষ্ট্রের সরকারি দফতরে সাধারণ মানুষের কোনও আধিকারিকের সঙ্গে দেখা করা বন্ধ করা হয়েছে। মহারাষ্ট্রে গত একদিনে ৪৪ হাজারের ওপর সংক্রমিতের খোঁজ মিলেছে। শুধু মুম্বই শহরেই ৭ হাজারের ওপর সংক্রমণের শিকার হয়েছেন গত ২৪ ঘণ্টায়। — সংবাদ সংস্থার সাহায্য নিয়ে লেখা

Show More
Back to top button