National

তুষারের প্রথম প্রেমের ছোঁয়ায় আরও সুন্দরী মানালি

তুষারের প্রথম প্রেমের ছোঁয়া লাগল মানালির বুকে। সেই তুষার স্পর্শের শিহরণে যেন হঠাৎই আরও সুন্দরী হয়ে উঠল মানালি। রূপবতী কন্যার মত ফেটে পড়ল রূপ।

অনেক দিনের অপেক্ষা। অবশেষে এল সেই ক্ষণ। যখন তুষারের স্পর্শ এক দীর্ঘ অপেক্ষার পর এসে লাগল মানালির সারা শরীরে। তার শরীর জুড়ে তুষারের সেই স্পর্শ নিমেষে বদলে দিল তার রূপ। আকাশ বাতাস সব যেন কতদিন ধরে অপেক্ষা করছিল এই সময়টার জন্য।

মানালি যে তুষারের স্পর্শ ছাড়া অপূর্ণ তা কে না জানে। মঙ্গলবার সেই ছোঁয়া পেল মানালি। শুধু মানালি বলেই নয়, কুফরিও পেয়েছে এবার প্রথম তুষারের স্পর্শ।

উত্তর ভারত এমনিতেই ঠান্ডায় কাঁপছে। কাশ্মীর উপত্যকায় বরফ পরা শুরু হয়ে গেছে। তরতর করে নামছে পারদ। দিল্লিতে এ বছর অক্টোবরে যে ঠান্ডা পরেছে তা দীর্ঘ দিন পর রেকর্ড গড়েছে।

দিল্লিতে নভেম্বর পরার পর থেকে পারদ নামছে। এবার কার্যত কনকনে দিওয়ালী পালন করেছে রাজধানী। আর এর মধ্যেই কাশ্মীর সেজে উঠেছে বরফের চাদরে। চারধার সাদা হয়ে গেছে। কাশ্মীরে এই তুষারপাত ঠান্ডা বয়ে আনছে গোটা উত্তর ভারতে।


কাশ্মীরের পাহাড়ি এলাকাগুলি বরফে ঢেকে গেছে। এরমধ্যেই হিমাচলেও তুষারপাত শুরু হয়ে গিয়েছে। আর মরসুমের প্রথম তুষারপাতে ঢেকে গেছে মানালি।

এর আগেই তুষারে ঢেকে গিয়েছিল পাহাড়ি এলাকা। অবশেষে মানালি, কুফরি পেল প্রথম তুষারপাত। লাহুল স্পিতি, চাম্বা, কুলু, কিন্নরও ঢেকে গেছে বরফের চাদরে। মানালিতে মরসুমের প্রথম তুষারপাতে মানালি এখন রূপবতী কন্যা। ধরমশালার কাছে ম্যাকলিয়ডগঞ্জ পর্যন্ত সাদা বরফে ঢেকে গিয়েছে।

এদিকে পশ্চিমী ঝঞ্ঝার পূর্বাভাস দিয়েছে আবহাওয়া দফতর। যে ঝঞ্ঝা ভূমধ্যসাগরে তৈরি হওয়ার পর আফগানিস্তান, পাকিস্তান হয়ে ভারতে ঢুকতে চলেছে বুধবার থেকেই।

সিমলাতে তুষারপাত না হলেও কনকনে বরফ ঠান্ডা বাতাস বইছে গত ২ দিন ধরে। সঙ্গে বৃষ্টিও হয়েছে। যার হাত ধরে সিমলার পারদ নেমেছে অনেকটাই। বৃষ্টি হয়েছে হিমাচলের সমতলেও। ফলে সেখানেও ঠান্ডা প্রবল। অগ্রহায়ণ মাসেই যে ঠান্ডা পরেছে উত্তর ভারত জুড়ে তাতে এবার ঠান্ডা অনেক রেকর্ড হয়তো ভেঙে দিতে পারে। — সংবাদ সংস্থার সাহায্য নিয়ে লেখা

Show Full Article

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Back to top button