National

বোনের প্রেমিককে পিটিয়ে মারল দাদা

বোনের সঙ্গে প্রেম করছেন এক তরুণ। এই খবর পেয়েছিল দাদা। সেই প্রেমে ইতি টানতে সে যা করল তা এক কথায় ভয়ংকর।

নয়াদিল্লি : বোনের সঙ্গে প্রেম করছেন এক তরুণ। কলেজে পড়েন। স্নাতক স্তরের ছাত্র। একথা জানতে পেরে যায় তরুণীর দাদা। বোনের এই প্রেমপর্ব মেনে নিতে পারেনি সে। ফলে বেছে নেয় ওই তরুণকে।

ওই ছাত্রের সঙ্গে গত বুধবার রাতে দেখা করে সে। রাত তখন ১১টা। বোনের প্রেমিককে ডেকে পাঠায় সে। প্রেমিকার দাদা দেখা করতে চায়। এটা শোনার পর ওই তরুণও রাজি হয়ে যান দেখা করতে।

রাত ১১টায় যখন দেখা হয় ২ জনের, শুরুতেই ওই তরুণকে তার বোনের থেকে দূরে থাকতে বলে দাদা।

ওই তরুণও নাছোড়। তিনিও স্পষ্ট জানিয়ে দেন তা তিনি করবেন না। প্রথমে হুমকির পর্যায়ে ছিল পুরো অবস্থাটা। ওই তরুণীর দাদা বারবার হুমকি দেয় কথা না শুনলে ফল ভাল হবে না। কিন্তু সেসব কথায় কান দেননি ওই তরুণ।

এরপর শুরু হয় প্রবল কথা কাটাকাটি। এরমধ্যেই ওই তরুণীর দাদা মারতে শুরু করে ওই তরুণকে। সঙ্গে ছিল আরও ৪টি ছেলে। তারাও বেধড়ক মারতে থাকে ওই তরুণকে।

ক্রমশ রক্তাক্ত হতে থাকে তাঁর দেহ। মার চলতেই থাকে। তারপর প্রায় সংজ্ঞাহীন অবস্থায় ওই তরুণকে ফেলে সেখান থেকে চম্পট দেয় ৫ জন।

তাদের হয়তো ধারণা ছিল উচিত শিক্ষা দেওয়া গেছে। হয়তো আর কখনও মেয়েটির ধারে কাছেও আসবেন না ওই তরুণ। কিন্তু ঘটে আরও ভয়ংকর ঘটনা।

ওই তরুণকে রক্তাক্ত অবস্থায় দ্রুত হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। চিকিৎসকদের অনেক চেষ্টা সত্ত্বেও মাত্র ঘণ্টা দুয়েকের মধ্যেই প্রাণ হারান ওই কলেজ পড়ুয়া তরুণ। চিকিৎসকেরা জানান দেহের অভ্যন্তরে রক্তক্ষরণের জেরে মৃত্যু হয় তাঁর।

মৃত তরুণ দিল্লির একটি কলেজের পড়ুয়া। থাকতেন দিল্লির আদর্শনগর এলাকায়। ঘটনাটি ঘটে সেখানেই। দ্রুত ঘটনার তদন্তে নামে পুলিশ। ওই তরুণীর দাদা সহ ৫ জনকে গ্রেফতার করে তারা।

পুলিশ জানিয়েছে এদের মধ্যে ৩ জন অপ্রাপ্তবয়স্ক। তরুণীর দাদা নিজেও স্নাতক স্তরের ছাত্র। — সংবাদ সংস্থার সাহায্য নিয়ে লেখা

Show More

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Back to top button