National

করোনাই ত্রাতা, সাময়িক রক্ষা পেল সরকার

করোনা উদ্বেগ ভারত জুড়ে যেভাবে বেড়ে চলেছে, যেভাবে মানুষের চিন্তা বাড়ছে, যেভাবে সব জায়গায় সাময়িকভাবে তালা ঝোলানো হচ্ছে, সেখানে করোনা সারা বিশ্বের মত ভারতেও মানুষের একমাত্র ভীতির কারণ হয়ে উঠেছে। এই অবস্থায় করোনা যে কারও ত্রাতা হয়ে উঠতে পারে তা বোধহয় কল্পনার অতীত। কিন্তু তাই হয়েছে। মধ্যপ্রদেশে খাদের কিনারায় দাঁড়িয়ে থাকা কমলনাথ সরকারের ফ্লোর টেস্ট কিছুটা হলেও পিছিয়ে দিল এই ভাইরাস।

সারা ভারতে যখন বিভিন্ন দর্শনীয় স্থান বা স্কুল-কলেজে তালা পড়ছে তখন করোনা উদ্বেগকে সামনে রেখে সোমবার মধ্যপ্রদেশ বিধানসভার অধিবেশনই পিছিয়ে দিলেন স্পিকার নর্মদা প্রসাদ প্রজাপতি। আগামী ২৭ মার্চ ফের বিধানসভা বসার কথা জানিয়েছেন তিনি। বিধানসভার অধিবেশনই যখন পিছিয়ে গেল তখন ফ্লোর টেস্টেরও এখন সম্ভাবনা নেই। তা হবে বিধানসভা বসলে। তাতে আপাতত সাময়িক হলেও স্বস্তি পেয়েছে কমলনাথ সরকার।

সরকারের তরফে মধ্যপ্রদেশের সব বিধায়ককে এন-৯৫ মাস্ক দেওয়া হয়েছে। এদিকে বিজেপি মধ্যপ্রদেশের স্পিকারের এই সিদ্ধান্তের বিরুদ্ধে সুপ্রিম কোর্টের দ্বারস্থ হয়েছে। যদিও কমলনাথ সরকারের এক মন্ত্রী জানিয়েছেন, কোভিড-১৯ ছড়ানো আটকাতে কেন্দ্রীয় সরকারের পরামর্শ মেনেই বিধানসভা আপাতত বন্ধ রাখা হয়েছে। প্রসঙ্গত বিহার বিধানসভাও আপাতত বন্ধ রাখা হয়েছে। — সংবাদ সংস্থার সাহায্য নিয়ে লেখা


Show Full Article

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Back to top button