National

জেডিএস বিধায়কদের ১০০ কোটি টাকা ঘুষের টোপ দিচ্ছে বিজেপি, সঙ্গে মন্ত্রিত্ব, দাবি কুমারস্বামীর

বিজেপি ১০৪। কংগ্রেস ৭৮। জেডিএস ৩৮। অন্যান্য ২। এটাই ২২৫ আসনের কর্ণাটক বিধানসভা ভোটের সর্বশেষ চিত্র। ভোট অবশ্য হয়েছিল‌ ২২২টি আসনে। ফলাফল থেকে পরিস্কার এখানে কোনও দলের হাতেই ১১২টি আসনের নিরঙ্কুশ সংখ্যাগরিষ্ঠতার ম্যাজিক ফিগার নেই। এই অবস্থায় গত মঙ্গলবার বিকেল থেকেই সরকার গড়তে তৎপর বিজেপি। অন্যদিকে সমান তৎপর কংগ্রেসের নিঃশর্ত সমর্থন পাওয়া জেডিএস। রাজ্যপাল বাজুভাই বালার কাছে ২ পক্ষই তদ্বিরে খামতি রাখেনি। কংগ্রেস, জেডিএস জোট দাবি করছে তাদের জোটের হাতে ম্যাজিক ফিগার রয়েছে। ফলে তাদের সরকার গড়তে ডাকা হোক। অন্যদিকে ম্যাজিক ফিগার না থাকলেও বিজেপি দাবি করছে তারাই সংখ্যাগরিষ্ঠ দল। তাই তাদের আগে বিধানসভায় সংখ্যা গরিষ্ঠতা প্রমাণের সুযোগ দেওয়া হোক। এই অবস্থায় বল এখন রাজ্যপালে কোর্টে। এদিকে দু’পক্ষ কিন্তু রণনীতি বদলে চলেছে। দাবার চাল পাল্টা চালের খেলা চলছে কর্ণাটকে।

একদিকে কংগ্রেস হুমকি দিয়েছে রাজ্যপাল যদি বিজেপিকে আগে সরকার গড়তে ডাকে তবে তারা সুপ্রিম কোর্টের দ্বারস্থ হতে প্রস্তুত। কারণ গত মঙ্গলবার থেকেই কংগ্রেস দাবি করে আসছে গোয়া সহ বেশ কিছু রাজ্যে জোটের হাতে ম্যাজিক ফিগার দেখে তাদেরই সরকার গড়তে ডেকেছেন সে রাজ্যের রাজ্যপাল। তাহলে কর্ণাটকের ক্ষেত্রে হবে না কেন? অন্যদিকে এদিন সাংবাদিকদের সামনে জেডিএস প্রধান তথা কংগ্রেস সমর্থিত জোটে মুখ্যমন্ত্রী পদপ্রার্থী এইচডি কুমারস্বামী বিস্ফোরক দাবি করেছেন। তাঁর দাবি তাঁদের ৩২ জন বিধায়ককে ইতিমধ্যেই বিজেপি অফার দিয়েছে। কী অফার? কুমারস্বামীর দাবি, ১০০ কোটি টাকা ঘুষ ও মন্ত্রিত্ব অফার করা হচ্ছে। যদিও ঘোড়া কেনাবেচার এই দাবি উড়িয়ে দিয়েছে বিজেপি। বরং তাদের দাবি, জেডিএস, কংগ্রেস জোটকে ২ দলের অনেক বিধায়কই মন থেকে মানতে পারছেন না। ফলে বিজেপির ম্যাজিক ফিগার না থাকলেও বিধানসভায় সেই ক্ষোভ উগড়ে ক্ষুব্ধ বিধায়কেরা বিজেপিকেই সমর্থন দেবেন বলে তাঁদের বিশ্বাস। এখন দেখার এই নাটকের যবনিকা পতন ঠিক কীভাবে হয়? কীভাবেই বা শেষ হয় নাটকের টানটান ক্লাইম্যাক্স।


Show Full Article

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Back to top button