World

বিমানে কিশোরীর সামনে খোলা প্যান্ট, এ কি করছিলেন চিকিৎসক

বিমানের সিটে বসে এক কিশোরীর সামনে যে কাণ্ড করলেন এক চিকিৎসক তাতে রীতিমত অবাক গোটা বিশ্ব। এমনও করা যায় এটা দেখেই হতবাক সকলে।

তিনি ভারতীয় বংশোদ্ভূত মার্কিন চিকিৎসক। এক মহিলা সহকর্মীর সঙ্গে তিনি বিমানে চড়ে বসেন। যেখানে তাঁর সিট ছিল তার পাশেই এক ১৪ বছরের কিশোরী বসেছিল। বিমানটি কিছুটা ওড়ার পর ওই কিশোরী লক্ষ্য করে তার পাশে বসা ওই চিকিৎসক গলা পর্যন্ত একটি কম্বলে মুড়ে রেখেছেন নিজেকে। আর তাঁর পা ২টো ওঠানামা করছে।

ওই কিশোরীর অবাক লাগে বিষয়টি। কিন্তু সামান্য সময়ের জন্যই এটা রহস্য ছিল। কিশোরী দেখে সামান্য সময়ের মধ্যেই ওই কম্বল আর গায়ে থাকেনা ৩৩ বছরের ওই ব্যক্তির। নিচে খসে পড়ে যায়। আর তখনই কিশোরীর নজরে পড়ে ওই চিকিৎসকের নিম্নাঙ্গের পোশাক অনেকটাই খোলা। আর তিনি হস্তমৈথুনে ব্যস্ত।

কিশোরীর সামনেই প্রকাশ্যে হস্তমৈথুন করতে থাকেন ওই চিকিৎসক। এটা দেখার পর ওই কিশোরী আর তার সিটে বসতে পারেনি। অন্য একটি ফাঁকা সিটে উঠে যায়।

বিমানটি অবতরণ করার পর ওই কিশোরী তার ঠাকুরদা ও ঠাকুমাকে পুরো বিষয়টি খুলে বলে। বিমানবন্দরেই পুরো বিষয়টি জানিয়ে এরপর অভিযোগ জানায় ওই কিশোরী।


অভিযোগমত ম্যাসাচুসেটস-এর চিকিৎসক সৌগত মোহান্তির বিরুদ্ধে মামলা দায়ের হয়। যদিও এমন কিছুই তিনি করেননি বলে জানান সৌগত।

হনলুলু থেকে বোস্টনগামী ওই বিমানে ঘটনাটি ঘটেছিল একবছর আগে। যা এতদিন বিচারাধীন ছিল। অবশেষে শাস্তি হল ওই চিকিৎসকের।

সৌগত মোহান্তির ৯০ দিনের জেল হেফাজত ও ৫ হাজার ডলার জরিমানা হয়। যদিও গারদের পিছনে যেতে হয়নি তাঁকে। তবে আদালত জানিয়ে দিয়েছে ওই ব্যক্তি কখনও কোনও অপ্রাপ্তবয়স্কের কাছে ঘেঁষতে পারবেননা। — সংবাদ সংস্থার সাহায্য নিয়ে লেখা

Show Full Article

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Back to top button