World

চিকিৎসকের চমৎকার, লম্বা হলেন বৃদ্ধ

তাঁকে চিরদিন সকলের চোখে ছোট চেহারার মানুষ হয়েই থাকতে হয়েছে। যা তিনি একেবারেই পছন্দ করতেন না। সেজন্য ৬৮ বছর বয়সে অন্য পথ নিলেন তিনি।

তাঁর বয়স ৬৮-তে এসে ঠেকেছে। তাতে কি! সেই কবে থেকেই তো তাঁর লম্বা হওয়ার শখ! তাঁকে সবাই খাটো চেহারার মানুষ বলেই দেখে এসেছেন। এটা তাঁর একেবারেই নাপসন্দ।

মানুষ কেমন চেহারার হবেন তা তাঁর হাতে নয়, কিন্তু চাইলে তা কিছুটা বদলে নেওয়াটা তো মানুষের হাতের মুঠোয় এসেছে। তবে নিজের চেহারা সাধারণভাবে কেউ বদলাতে যান না। তিনি যা, তাতেই সন্তুষ্ট থাকেন।

৬৮ বছরের এই বৃদ্ধ মানুষটি অবশ্য সেই দর্শনে বিশ্বাসী নন। তিনি তাই স্থির করেন লম্বা হবেন। ৫ ফুট ৬ ইঞ্চির উচ্চতাকে বাড়াবেন।

এজন্য ওই বৃদ্ধ হাজির হন এক বিশেষজ্ঞ চিকিৎসকের কাছে। তাতে কাজও হয়। তিনি এখন ৫ ফুট ৯ ইঞ্চির মানুষ। কিন্তু কীভাবে তা সম্ভব হল?


মানুষের পা লম্বা করার জন্য এখন বিশেষজ্ঞ চিকিৎসকেরা থাইয়ে থাকা হাড় অপারেশন করে ভেঙে দেন। তারপর সেটিকে বিশেষ পদ্ধতিতে লম্বা হতে দেন।

সেখানে বিশেষ ধরনের পেরেক লাগানো হয়। যাতে সেটি ধীরে ধীরে লম্বা হতে পারে। ফলে এই অপারেশনের পর একটা দীর্ঘ সময় নিয়ম মেনে থাকতে হয়। যাতে হাড় বাড়ায় সমস্যা না হয়।

রয় কন নামে ওই বৃদ্ধ এই সবই করেছেন। আর এই ৩ ইঞ্চি লম্বা হওয়ার জন্য তাঁকে খরচ করতে হয়েছে ১ লক্ষ ৩০ হাজার পাউন্ড, যা ভারতীয় মুদ্রায় দাঁড়ায় ১ কোটি ২০ লক্ষ টাকার মতন। আমেরিকায় হওয়া এই বৃদ্ধের লম্বা হওয়ার খবর এখন বিশ্বের তামাম সংবাদমাধ্যমে ছড়িয়ে পড়েছে।

Show Full Article

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Back to top button