National

করোনা রিপোর্টকে কেন্দ্র করে বিমানবন্দরে তুমুল অশান্তি

বিমানে এখন উঠতে গেলে করোনা রিপোর্ট আবশ্যিক। আর সেখানেই বাধল গণ্ডগোল। যার জেরে দেশের অন্যতম ব্যস্ত বিমানবন্দরে হয়ে গেল তুলকালাম।

করোনা পরিস্থিতির কথা মাথায় রেখে এখন বিমানে উঠতে গেলেই যাত্রীর করোনা রিপোর্ট লাগছে। ৩ দিনের মধ্যে করানো আরটি-পিসিআর রিপোর্ট নিয়ে গেলে তবেই মিলছে যাত্রার অনুমতি। তাও যদি রিপোর্ট নেগেটিভ হয় তবেই।

সেই নিয়ম মেনে দিল্লি বিমানবন্দরে এক যাত্রীর কাছে আরটি-পিসিআর রিপোর্ট চেয়েছিলেন সুরক্ষার দায়িত্বে থাকা আধিকারিকরা। কিন্তু ওই যাত্রী জানিয়ে দেন তাঁর ওই রিপোর্ট করানো নেই। অগত্যা বিমানবন্দরের তরফে জানিয়ে দেওয়া হয় সেক্ষেত্রে তাঁকে যাত্রা করতে দেওয়া যাবেনা।

ওই ব্যক্তি কিন্তু সেসব শুনতে নারাজ ছিলেন। তিনি সাফ জানিয়ে দেন ভিস্তারা বিমান সংস্থার মুম্বইগামী বিমানে তাঁর টিকিট রয়েছে। তাই তিনি সেই বিমানে চড়বেন। তাঁকে আটকানোর চেষ্টা হলে এবার তিনি অশান্তি শুরু করেন।

প্রথমে ব্যাগ পরীক্ষার লাইন আটকে দাঁড়িয়ে পড়েন। সেখান থেকে সরানো হলে তিনি গিয়ে বসে পড়েন বিমানবন্দরের মেঝেতে। তারপর প্রতিবাদ জানাতে থাকেন।


অভিযোগ, বিমানবন্দরের কর্মীরা তাঁকে বোঝাতে এলে তাঁদের সঙ্গেও অভব্য আচরণ করেন উত্তরপ্রদেশের দেওরিয়ার বাসিন্দা সূরজ সিং নামে ওই ব্যক্তি।

এদিকে ওই ব্যক্তির কাণ্ডে বিমানবন্দরে হৈচৈ শুরু হয়। যাত্রীরাও সমস্যায় পড়েন। বিমানবন্দরের কর্মীদের কাজকর্মে বাধা দিতে থাকেন সূরজ। যাত্রীদেরও নানাভাবে সমস্যায় ফেলতে থাকেন।

অগত্যা তাঁকে আটক করে সিআইএসএফ। জামিনযোগ্য হওয়ায় পরে জামিন পেলেও ওই ব্যক্তিকে আদালতে হাজির হতে হবে। — সংবাদ সংস্থার সাহায্য নিয়ে লেখা

Show Full Article
Back to top button