Feature

দেশেই রয়েছে বিশ্বের দীর্ঘতম রেল প্ল্যাটফর্ম, তবে খড়গপুর নয়

একটা সময় পর্যন্ত বিশ্বের সবচেয়ে লম্বা প্ল্যাটফর্ম বলা হত খড়গপুরকে। যদিও তা এখন অতীত। এখনও অবশ্য বিশ্বের সবচেয়ে লম্বা রেলস্টেশনের প্ল্যাটফর্ম রয়েছে এ দেশেই।

ভারতের রেল যোগাযোগ বিশ্বের অন্যতম উল্লেখ্য বিষয়। দেশজুড়ে জালের মত ছড়িয়ে থাকা রেল যোগাযোগ কোটি কোটি মানুষকে পরিষেবা দিয়ে চলেছে।

একটা সময় পর্যন্ত পশ্চিমবঙ্গের খড়গপুর স্টেশনে ছিল বিশ্বের সবচেয়ে লম্বা প্ল্যাটফর্ম। ১ হাজার ৭২ মিটার লম্বা এই স্টেশনের প্ল্যাটফর্ম বহুদিন বিশ্বের সবচেয়ে লম্বা প্ল্যাটফর্ম হয়ে থেকে গিয়েছিল।

Indian Railways
খড়গপুর স্টেশন, ছবি – সৌজন্যে – ফ্লিকার – @ Ambuj Saxena

পরে খড়গপুরের চেয়েও লম্বা রেলস্টেশনের প্ল্যাটফর্ম তৈরি হয় উত্তরপ্রদেশে। রাজ্যের গোরক্ষপুর স্টেশনের প্ল্যাটফর্ম খড়গপুরের চেয়েও লম্বা প্ল্যাটফর্ম হিসাবে বিশ্বের ১ নম্বর স্থান দখল করে। যা ১ হাজার ৩৬৬ মিটার লম্বা। সেই গোরক্ষপুর স্টেশনের প্ল্যাটফর্মকেও পিছনে ফেলে দিল ভারতেরই আর একটি স্টেশন।

কর্ণাটকের হুবলি জংশন এখন বিশ্বের সবচেয়ে লম্বা রেলস্টেশনের প্ল্যাটফর্মের তকমা পেয়েছে। হুবলি স্টেশনের প্ল্যাটফর্ম লম্বায় ১ হাজার ৫০৫ মিটার। ফলে তা গোরক্ষপুরের চেয়েও অনেকটাই দীর্ঘ।

Indian Railways
গোরক্ষপুর স্টেশন, ছবি – সৌজন্যে – উইকিমিডিয়া কমনস

বিশ্বের সবচেয়ে লম্বা রেলস্টেশনের প্ল্যাটফর্ম এখন হুবলি স্টেশনে। দ্বিতীয় স্থানে রয়েছে ভারতেরই গোরক্ষপুর স্টেশন। এমনকি তৃতীয় স্থানেও রয়েছে ভারতের স্টেশনই। কেরালার কোল্লাম জংশনের প্ল্যাটফর্ম ১ হাজার ১৮০.৫ মিটার দৈর্ঘ্য নিয়ে বিশ্বের তৃতীয় দীর্ঘতম প্ল্যাটফর্ম হিসাবে জায়গা করে নিয়েছে। খড়গপুর এখন চতুর্থ দীর্ঘতম রেলস্টেশনের প্ল্যাটফর্মে পরিণত হয়েছে।

Indian Railways
খড়গপুর স্টেশন, ছবি – সৌজন্যে – উইকিমিডিয়া কমনস

বিশ্বের সব দেশেই রেল যোগাযোগ এক অন্যতম যোগাযোগ মাধ্যম হয়ে আছে। তবে ভারতে রেলের রুটের সংখ্যা অনেক বেশি।

Indian Railways
কেরালার কোল্লাম জংশনের প্ল্যাটফর্ম, ছবি – সৌজন্যে – উইকিমিডিয়া কমনস

ভারতে এখনও বিমান পরিষেবা সেই পর্যায়ে পৌঁছতে পারেনি যে তা উন্নত দেশগুলির মত রেলের বিকল্প হিসাবে সামনে আসবে। তাই ভারতের সিংহভাগ মানুষের এখনও ট্রেনই দূরে যাওয়ার একমাত্র ভরসা। — সংবাদ সংস্থার সাহায্য নিয়ে লেখা

Show More

News Desk

নীলকণ্ঠে যে খবর প্রতিদিন পরিবেশন করা হচ্ছে তা একটি সম্মিলিত কর্মযজ্ঞ। পাঠক পাঠিকার কাছে সঠিক ও তথ্যপূর্ণ খবর পৌঁছে দেওয়ার দায়বদ্ধতা থেকে নীলকণ্ঠের একাধিক বিভাগ প্রতিনিয়ত কাজ করে চলেছে। সাংবাদিকরা খবর সংগ্রহ করছেন। সেই খবর নিউজ ডেস্কে কর্মরতরা ভাষা দিয়ে সাজিয়ে দিচ্ছেন। খবরটিকে সুপাঠ্য করে তুলছেন তাঁরা। রাস্তায় ঘুরে স্পট থেকে ছবি তুলে আনছেন চিত্রগ্রাহকরা। সেই ছবি প্রাসঙ্গিক খবরের সঙ্গে ব্যবহার হচ্ছে। যা নিখুঁতভাবে পরিবেশিত হচ্ছে ফোটো এডিটিং বিভাগে কর্মরত ফোটো এডিটরদের পরিশ্রমের মধ্যে দিয়ে। নীলকণ্ঠ.in-এর খবর, আর্টিকেল ও ছবি সংস্থার প্রধান সম্পাদক কামাখ্যাপ্রসাদ লাহার দ্বারা নিখুঁত ভাবে যাচাই করবার পরই প্রকাশিত হয়।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Back to top button