National

কাকভোরে ট্রেনে কাটা পড়ে মৃত ১৫

এই লকডাউনের মধ্যেও ট্রেনে কাটা পড়ে মৃত্যুর ঘটনা ঘটল। যা অনেককেই অবাক করেছে। মৃতের সংখ্যা আরও বাড়তে পারে।

আগামী ১৭ মে পর্যন্ত তৃতীয় দফার লকডাউন চলবে। এই সময়ের মধ্যে কোনও যাত্রীবাহী লোকাল বা দূরপাল্লার ট্রেন চালানো হবে না বলে পরিস্কার করে দিয়েছে রেল কর্তৃপক্ষ। স্তব্ধ যাত্রী পরিবহণ। তাতেও ট্রেনে কাটা পড়ার মত দুর্ঘটনা যে ঘটতে পারে তা দেখে অনেকেই অবাক হয়ে যাচ্ছেন। কিন্তু এমনটাই ঘটেছে শুক্রবার ভোর সাড়ে ৫টা নাগাদ। রেল কর্তৃপক্ষ জানাচ্ছে মোট ১৭ জন কাটা পড়েছেন। তারমধ্যে ১৫ জনের মৃত্যু হয়েছে। বাকিরা আহত। ফলে মৃতের সংখ্যা বাড়তেও পারে।

শুক্রবার ভোরে ঘটনাটি ঘটেছে মহারাষ্ট্রের ঝালনা ও ঔরঙ্গাবাদের মাঝে বাদনাপুর স্টেশনের কাছে। একটি মালগাড়ি বাদনাপুর স্টেশন পার করার পর চালক দেখেন তিনি যে লাইনের ওপর রয়েছেন সেই লাইনের ওপর শুয়ে আছেন বেশ কয়েকজন মানুষ। দেখামাত্র তিনি হর্ন দিতে শুরু করেন। সেইসঙ্গে ট্রেনের গতি কমিয়ে তা থামানোর চেষ্টা করেন। কিন্তু তিনি কিছু করে ওঠার আগেই ট্রেনটি লাইনে শুয়ে থাকা মানুষজনের ওপর দিয়ে চলে যায়।

রেল কর্তৃপক্ষ জানাচ্ছে, যাঁরা কাটা পড়েছেন তাঁরা প্রত্যেকেই পরিযায়ী শ্রমিক। হেঁটেই ফিরছিলেন বাড়িতে। রাতে ক্লান্ত হয়ে রেল লাইনের ওপরই তাঁরা শুয়ে পড়েন। তারপর হয়তো গভীর ঘুমে ডুবে যান। যার ফল হল মারাত্মক। ট্রেন লাইনের ওপর বিশ্রাম নেওয়ার খেসারত প্রাণ দিয়ে দিতে হল তাঁদের। মালগাড়িটি তেলেঙ্গানা থেকে মহারাষ্ট্রের মানমাড়ের কাছে আসছিল। এই ঘটনায় শোকপ্রকাশ করে ট্যুইট করেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী। তিনি জানিয়েছেন রেলমন্ত্রী পীযূষ গোয়েলকে তিনি নির্দেশ দিয়েছেন পরিস্থিতির দিকে নজর রাখতে। সবরকম সাহায্য দিতে। রেলমন্ত্রী এই ঘটনার তদন্তের নির্দেশ দিয়েছেন। — সংবাদ সংস্থার সাহায্য নিয়ে লেখা


Show Full Article

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Back to top button