Health

ভারতে কবে থেকে জরুরি ভিত্তিতে টিকাকরণ জানাল স্বাস্থ্যমন্ত্রক

জরুরি ভিত্তিতে ২টি টিকা দেওয়ায় সবুজ সংকেত দিয়েছে ডিজিসিআই। কিন্তু কবে থেকে তা চালু হবে? সেই জল্পনার অবসান ঘটাল স্বাস্থ্যমন্ত্রক।

নয়াদিল্লি : জরুরি ভিত্তিতে ভারতে টিকাকরণ শুরু করায় গত ৩ জানুয়ারি ছাড় দেওয়া হয়েছে ২টি টিকাকে। একটি অক্সফোর্ড বিশ্ববিদ্যালয় ও অ্যাস্ট্রাজেনেকার যৌথ উদ্যোগে তৈরি কোভিশিল্ড। যা পুনের সংস্থা সেরাম ইন্সটিটিউট ভারতে বিক্রি করতে চলেছে। অন্যদিকে ছাড়পত্র পেয়েছে হায়দরাবাদের ভারত বায়োটেক-এর কোভ্যাক্সিন। যা ভারতে তৈরি হওয়া টিকা।

এই ২টি টিকার ছাড়পত্র দেয় ডিজিসিআই। কিন্তু কবে থেকে এই টিকাকরণ শুরু হবে তা নিয়ে কিছুই ওই দিন জানানো হয়নি। ফলে সে প্রশ্ন নানা মহলে ঘুরছিল।

এবার সেই প্রশ্নের উত্তর দিল স্বাস্থ্যমন্ত্রক। তারা জানিয়ে দিয়েছে আগামী ১৩ জানুয়ারি থেকে এই ২টি টিকা জরুরি ভিত্তিতে দেওয়া শুরু করতে তারা প্রস্তুত। স্বাস্থ্য সচিব রাজেশ ভূষণ একথা স্পষ্ট করে দিয়েছেন।

Rajesh Bhushan
ফাইল : রাজেশ ভূষণ, ছবি – আইএএনএস

এদিকে স্বাস্থ্যমন্ত্রী হর্ষ বর্ধন আগেই জানিয়ে দিয়েছিলেন সাকুল্যে আপাতত ৩০ কোটি মানুষের টিকাকরণ করা হবে। যার মধ্যে প্রথম দফায় দেওয়া হবে ৩ কোটি মানুষকে।


৩ কোটির মধ্যে ১ কোটি হলেন স্বাস্থ্যকর্মী। বাকি ২ কোটি হলেন ফ্রন্টলাইন ওয়ার্কার। এই ৩ কোটি মানুষকে বিনামূল্যে টিকা দেওয়া হবে বলেও জানিয়েছিলেন স্বাস্থ্যমন্ত্রী।

তারপর দেওয়া হবে ২৭ কোটি মানুষকে। যাঁদের বয়স ৫০ বছরের ওপর এবং যাঁদের কোমর্বিডিটি রয়েছে তাঁদের এই পর্যায়ে টিকাকরণ করা হবে।

মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের পর ভারতই বিশ্বের দ্বিতীয় বৃহত্তম সংক্রমিত দেশ। সেখানে টিকাকরণের আশু প্রয়োজনীয়তা ছিল। সেখানে নতুন বছর টিকাকরণের এই সুযোগ তৈরি হওয়া অবশ্যই বহু মানুষের মধ্যে আশার সঞ্চার করেছে। করোনামুক্ত ভারত তৈরির একটা দিশা তো তৈরি হয়েছে।

এদিকে জাইডাস ক্যাডিলা-র টিকাকেও তৃতীয় পর্যায়ের ট্রায়ালে সম্মতি দেওয়া হয়েছে। সেটি সবুজ সংকেত পেলে ভারতের নিজস্ব ২টি টিকা তৈরি হবে।

এছাড়া রাশিয়ার স্পুটনিক ভি-এর ট্রায়ালও ভারতে হচ্ছে। সেটিও অনুমতি পেলে ভারতে টিকাকরণের সুবিধা আরও বাড়বে। আমেরিকার ফাইজার ও মডার্নার টিকাও ভারতে ঢুকতে পারে বলে শোনা যাচ্ছে। — সংবাদ সংস্থার সাহায্য নিয়ে লেখা

Show Full Article
Back to top button