Health

মানুষের ক্ষতি না করে অতিবেগুনি রশ্মিতে কোভিড বিনাশ সম্ভব, বলছে গবেষণা

অতিবেগুনি রশ্মি বা আলট্রাভায়োলেট রে, যা জীবাণু মারতে ব্যবহার করা হয়ে থাকে, তা করোনা মারতেও সক্ষম বলে দাবি করলেন গবেষকরা।

টোকিও : ২২২ ন্যানোমিটার ওয়েভ লেন্থ-এর আলট্রাভায়োলেট সি রে করোনা বিনাশে সক্ষম। তা মানুষের ক্ষতিও করেনা। ২২২ ন্যানোমিটার ওয়েভ লেন্থ-এর আলট্রাভায়োলেট সি রে ফার-ইউভিসি নামেও পরিচিত। যা মরসুমি ভাইরাস বিনাশে ব্যবহার হত। তবে তা কোভিড-১৯ বা সার্স-কভ-২ মারতে সক্ষম কিনা তা জানা ছিলনা।

হিরোশিমা বিশ্ববিদ্যালয়ের একদল গবেষক এই সময় এই ২২২ ন্যানোমিটার ওয়েভ লেন্থ-এর আলট্রাভায়োলেট সি রে নিয়ে গবেষণা করেন। তাঁদের সেই গবেষণার কথা একটি মার্কিন জার্নালে প্রকাশিত হয়েছে।

হিরোশিমা বিশ্ববিদ্যালয়ের গবেষকরা দাবি করেছেন ভিট্রো পরীক্ষার মধ্যে দিয়ে তাঁরা দেখেছেন ৯৯.৭ শতাংশ কোভিড ভাইরাল কালচার ৩০ সেকেন্ডে বিনাশ হতে পারে ২২২ ন্যানোমিটার ওয়েভ লেন্থ-এর আলট্রাভায়োলেট সি রে-তে।

ইউভিসি ল্যাম্পের মাধ্যমে এই পরীক্ষা করা হয়। যা সফল হয়েছে বলে দাবি করেছেন গবেষকরা।

গবেষকরা জানিয়েছেন একটি প্লেটের ওপর কোভিড ভাইরাস থাকা একটি মিশ্রণকে ঢেলে দেওয়া হয়। এরপর গবেষকেরা সেটিকে প্লেটে শুকনো হওয়ার সময় দেন। তা শুকনো হয়ে গেলে ওই প্লেটের ওপর ইউভিসি ল্যাম্পটিকে রাখা হয়। প্লেট থেকে ল্যাম্পের দূরত্ব ছিল ২৪ সেন্টিমিটার। তারপর পরীক্ষায় মেলে সাফল্য।

গবেষকরা দাবি করেছেন ২২২ ন্যানোমিটার ওয়েভ লেন্থ-এর আলট্রাভায়োলেট সি রে মানবদেহের চোখ বা চামড়ার কোনও ক্ষতি করেনা।

গবেষকরা এও জানিয়েছেন এই ২২২ ন্যানোমিটার ওয়েভ লেন্থ-এর আলট্রাভায়োলেট সি রে অনেক বেশি সুরক্ষিত ২৫৪ ন্যানোমিটার ওয়েভ লেন্থ-এর আলট্রাভায়োলেট সি রে-র ইউভিসি জার্মিসিডাল ল্যাম্পের থেকে। যা স্বাস্থ্য পরিষেবায় ব্যবহৃত হয়ে থাকে।

গবেষকরা জানিয়েছেন যেহেতু ২৫৪ ন্যানোমিটার ওয়েভ লেন্থ-এর আলট্রাভায়োলেট সি রে মানবদেহের তন্তুগুলির জন্য ক্ষতিকারক তাই কেবল খালি ঘরকে স্যানিটাইজ করতে এই ল্যাম্প ব্যবহার করা যেতে পারে।

কিন্তু ২২২ ন্যানোমিটার ওয়েভ লেন্থ-এর আলট্রাভায়োলেট সি রে হাসপাতাল বা যেখানে মানুষের ভিড় রয়েছে সেখানে ব্যবহার করা যেতে পারে। তা সুরক্ষিত বলেই দাবি করেছেন গবেষকেরা। — সংবাদ সংস্থার সাহায্য নিয়ে লেখা

Show More

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Back to top button