World

পুরুষ নার্সের পাশবিক হত্যালীলা, মৃত ৯০ রোগী

হাসপাতালে ভর্তি ২ রোগীকে হত্যার ঘটনায় ২০১৫ সালে যখন তার সাজা হয় তখনও কারও ধারণা ছিলনা তার কুকীর্তির শিকড় কতটা গভীরে। তখন তার সাজা হয় ব্রেমেন শহরের দেলমেনর্স্ট হাসপাতালে ভর্তি ২ রোগীকে মারণ ওষুধের ওভারডোজ দিয়ে হত্যা করার অপরাধে। ৪০ বছর বয়সী পুরুষ নার্স নিয়েলস হেগেলের ২০১৫ সালের ফেব্রুয়ারিতে কারাদণ্ডের নির্দেশ দেয় আদালত। কিন্তু ফরেনসিক বিশেষজ্ঞদের খটকা লাগায় তাঁরা আরও ১৩০ জন রোগীর মৃত্যুর কারণ পরীক্ষা করে দেখছিলেন। সেই খোঁজ চলেছে প্রায় আড়াই বছর। অবশেষে তাঁরা যে তথ্য সামনে আনলেন তাতে গোটা জার্মানির চোখ কপালে উঠেছে।

ফরেনসিক বিশেষজ্ঞেরা জানাচ্ছেন ১৯৯৯ থেকে ২০০৫ সালের মধ্যে যে ২টি হাসপাতালে হেগেল কাজ করেছে সেখানে অন্তত ৯০ জন রোগীকে ওষুধের ওভারডোজ দিয়ে হত্যা করেছে সে। দ্বিতীয় বিশ্বযুদ্ধের পরবর্তী জার্মানিতে যা সবচেয়ে ভয়ংকর হত্যালীলা। হেগেলও পুলিশের কাছে স্বীকার করেছে যে সে রোগীদের ওষুধের ওভারডোজ ইনজেকশন হিসাবে দিত। যাতে তাদের হৃদযন্ত্র কাজ করা বন্ধ করে দেয়।


Show Full Article

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Back to top button