Sunday , July 22 2018
Four Sigmatic

চা-কফির বিকল্প মাশরুম চা, মাশরুম কফি!

সকাল সকাল ঘুম জড়ানো চোখে ধোঁয়া ওঠা এক কাপ চা মন ফুরফুরে করে তুলতে যথেষ্ট। চা পিপাসুদের কারোর মন মজে ঘন দুগ্ধ স্নাত চায়ে। কারোর রসনা তৃপ্ত হয় লিকার চায়ের সুগন্ধি সুবাসে। স্বাস্থ্য সচেতনরা আবার আয়েস করে চুমুক দেন গ্রিন টিতে। চায়ের পাশাপাশি বিশ্ব সংসারে কফির কদর কম নয়। বিশেষত কনকনে ঠান্ডায় শরীর উষ্ণ রাখতে কফির বিকল্প নেই। কফি গন্ধে, বর্ণে, স্বাদে বৈচিত্র্যময়। তবে ঘন ঘন চা বা কফি পান স্বাস্থ্যের জন্য মোটেই ভালো নয়। বারবার এই বিষয়ে চা, কফির গুণগ্রাহীদের সতর্ক করে দেন চিকিৎসকেরা। কিন্তু চা বা কফির নেশায় যাঁরা মজেছেন, তাঁরা কি আর বিধিনিষেধের চোখরাঙানির তোয়াক্কা করেন! তা হলে স্বাস্থ্য সুরক্ষার দিকটির কি হবে? সেই সমস্যার সমাধানে এগিয়ে এসেছে লস অ্যাঞ্জেলসের ‘ফোর সিগম্যাটিক’ সংস্থা। চা পাতা বা কফি নয়, ওই সংস্থা বাজারে হাজির করেছে মাশরুমজাত চা ও কফি। চা ও কফি প্রস্তুতকারক সংস্থাটির দাবি, স্বাস্থ্যগুণে লা-জবাব মাশরুম চা এবং মাশরুম কফি। তাই এখন থেকে মনের আনন্দে একাধিকবার চা, কফিতে চুমুক দিতে পারবেন মানুষ।

সংস্থার দাবি, ত্বক ও শরীরকে সুস্থ সবল রাখতে বিভিন্ন জাতের মাশরুম ব্যবহার করে তারা। যেমন, উজ্জ্বল ও ঝলমলে ত্বকের জন্য আছে ‘রেইশি’ মাশরুম। শরীরে অ্যান্টি অক্সিডেন্টের যোগান দিতে আছে ‘চাগা’ মাশরুম। শরীরকে কর্মক্ষম তরতাজা রাখতে ‘কর্ডিসেপ্স’ মাশরুমও আছে সংস্থার ভাণ্ডারে। এই সব মাশরুম থেকে সম্পূর্ণ প্রাকৃতিক উপায়ে তৈরি চা বা কফি বানিয়ে মার্কিনবাসীর মন জয় করে নিয়েছে ‘ফোর সিগম্যাটিক’।

শুধু চা বা কফিতেই পরীক্ষানিরীক্ষা থেমে থাকেনি। মাশরুম দিয়ে সুস্বাদু ‘শ্রুম শেক’ বানিয়ে তাক লাগিয়ে দিয়েছে লস অ্যাঞ্জেলসের ‘লাইফহাউজ টনিক্স’। বাঙালি ভোজনপ্রিয়, পানীয়বিলাসী জাতি। নতুনত্বের স্বাদ নিতে তাই একবার চুমুক দেওয়াই যায় মাশরুম চা আর কফিতে! কি বলেন!

(ছবি – সৌজন্যে – ফোর সিগম্যাটিক)



About News Desk

Check Also

All India Trinamool Congress

২১শের মঞ্চে তৃণমূলে সাবিনা, চন্দন, মইনুল

২১শে জুলাইয়ের মঞ্চে প্রতি বছরই কেউ না কেউ তৃণমূলে যোগদান করেন। এবার কিন্তু সেই যোগদান বেশ নজর কাড়ল।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.