SciTech

১০ লক্ষ মানুষকে মঙ্গলগ্রহে পাঠানোর ভাবনা, চাঁদে তৈরি হবে ঘাঁটি

কোনও কল্পবিজ্ঞান নয়। ঘোর বাস্তব। ১০ লক্ষ মানুষকে লাল গ্রহে নিয়ে যাওয়ার ভাবনা সামনে এল। সামনে এল চাঁদে ঘাঁটি তৈরির কথাও।

মানুষ পৃথিবী থেকে রকেটে চেপে গ্রহ থেকে গ্রহান্তরে পৌঁছে যাচ্ছে। এমনটা সাইফাই সিনেমা বা নভেলে পাওয়া গিয়েছে। কমিকস বইতেও এই কল্পবিজ্ঞান নানারূপে সামনে এসেছে। কিন্তু কল্পবিজ্ঞানকেই এবার বিজ্ঞানের হাত ধরে বাস্তবে করে দেখাচ্ছে মানুষ। বেসরকারি মহাকাশযান সংস্থা স্পেসএক্স-এর কর্ণধার ইলন মাস্ক এবার যা বললেন তা সেই কল্পবিজ্ঞানকে বাস্তব করার দৌড়ে আরও একধাপ এগিয়ে গেল।

মাস্ক দাবি করেছেন তিনি স্পেসশিপে চাপিয়ে ১০ লক্ষ মানুষকে লাল গ্রহে পাঠানোর ভাবনা চিন্তা শুরু করেছেন। তাঁর সংস্থা সেই উদ্যোগকে সফল করবে।

মাস্কের মতে, একটা সময় আসবে যখন পৃথিবীর ২টি দেশের মধ্যে বিমান পরিষেবার মতই পৃথিবী থেকে মঙ্গলগ্রহে অহরহ যাতায়াত করতে পারবেন মানুষ।

মাস্ক এও বলেন যে তিনি চেষ্টা করছেন যাতে তাঁর স্পেসশিপে চাপিয়ে ৮ বছরের মধ্যেই চাঁদে মানুষ পাঠানো যায়। এমনকি চাঁদে একটি আলাদা ঘাঁটিও গড়তে চাইছেন তিনি।


তাঁর মতে, পৃথিবীর বাইরেও মানুষের এক স্থায়ী ঘাঁটি থাকা দরকার হয়ে পড়েছে। সেজন্য তিনি চাঁদকে বেছে নিচ্ছেন প্রাথমিক পদক্ষেপ হিসাবে।

Elon Musk
ফাইল : ইলন মাস্ক, ছবি – আইএএনএস

প্রথমে ইলন মাস্ক চাঁদে মানুষ পাঠাবেন। সেখানে যাতে তাঁরা স্থায়ীভাবে থাকতেও পারেন সেদিকে নজর দেওয়া হবে। তারপর স্পেসশিপে করে মঙ্গলে পাড়ি দেবে মানুষ।

এখন পৃথিবীর বাইরে দীর্ঘদিন কাটানোর জন্য স্পেস স্টেশন রয়েছে। যা ভূপৃষ্ঠ থেকে ৪০০ কিলোমিটার উচ্চতায় রয়েছে। মাস্ক চাইছেন তার থেকেও অনেক দূরে মানুষের স্থায়ী বাসস্থানের ব্যবস্থা করতে। — সংবাদ সংস্থার সাহায্য নিয়ে লেখা

Show Full Article

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Back to top button